মামুনুল হককে কটাক্ষ করায় সুনামগঞ্জে হামলা-লুটপাট

mamun

নিউজ ডেস্কঃ হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে নিয়ে ফেসবুকে অশালীন পোস্ট/কটাক্ষ করাকে কেন্দ্র করে একটি হিন্দুপল্লিতে হামলা ও লুটপাট চালিয়েছে তার কট্টরপন্থী সমর্থকরা।

বুধবার (১৭ মার্চ) সকালে নোয়াগাঁও গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এসময় নোয়াগাঁও গ্রামের লোকজন ভয়ে হাওরে আশ্রয় নেয়। মামুনুলের সমর্থকরা ৮৯টি বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটতরাজ করে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

হামলা ও লুটপাট করে মামুনুলের সমর্থকরা চলে যাওয়ার পর গ্রামবাসী আবার ফিরে আসে। হামলার ঘটনায় পুরো এলাকার মানুষের মনে আতঙ্ক ভর করেছে।

ভুক্তভোগীরা জানান, মাইকে ঘোষণা দিয়ে মামুনুল হকের সমর্থকরা গ্রামে হামলা চালায়। এতে আতঙ্কিত হয়ে তারা দ্বিবিদ্বিক গ্রাম ছেড়ে যায়। ফিরে এসে দেখেন তাদের কারো আলমারি ভেঙে লুট করে নিয়ে গেছে, কারো বাদ্যযন্ত্র ভেঙে ফেলেছে কারো বা আবার কাপড় নিয়ে যাওয়াসহ হাড়ি-পাতিল পর্যন্ত কেটে ফেলে গেছে।

শাল্লা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী আল মাহমুদ বলেন, ফেসবুক পোস্ট করাকে কেন্দ্র করে অতর্কিতভাবে এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেছে। পাশের কাশিপুর গ্রামের লোকজন নোয়াগাঁও গ্রামকে রক্ষা করার চেষ্টা করেছেন। তবে কিছু উচ্ছৃঙ্খল মানুষ গ্রামে উঠে ঘর-বাড়ি ভাংচুর করেছে।

সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বলেন, হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে নিয়ে ফেসবুকে অশালীন পোস্ট করাকে কেন্দ্র করে নোয়াগাঁও এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করলে মঙ্গলবার রাতে ঝুমন দাস আপনকে আটক করা হয়েছে। আজ সকালে শাল্লার থানার নোয়াগাঁও গ্রামে কিছু ঘরবাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। গ্রামের পরিস্থিতি এখন শান্ত আছে। ঘটনাটি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •