শিবগঞ্জে মারা যাওয়া যুবকের শরীরে করোনা পাওয়া যায়নি

শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ

বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার মহব্বত নন্দীপুর (কূপা) গ্রামে জ্বর, সর্দি ও শ্বাসকষ্টে নিহত যুবক মাসুদ রানা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন না। সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বগুড়ার সিভিল সার্জন ডাঃ গাওছুল আজিম। মৃত ব্যক্তির সংগ্রহ করা নমুনা ঢাকায় পাঠানোর পর সোমবার দুপুর ১টায় বগুড়ার সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট এসে পৌছায়। ৎ

জানা যায়, গত শনিবার সকাল আনুমানিক ৮.৩০ মিনিটে শিবগঞ্জ উপজেলার ময়দানহাট্টা ইউনিয়নের মহব্বত নন্দীপুর (কূপা) গ্রামে মৃত্যু হয় মাসুদ রানা (৪৫)। তার মুত্যুর পর এলাকায় করোনা ভাইরাস আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় আশপাশের ২০টি বাড়ি লকডাউন ঘোষণা করেন স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন। খবর পেয়ে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা মৃতদেহ থেকে নমুনা হিসেবে মুখের লালা সংগ্রহ করে ঢাকায় আইইডিসিআর এ প্রেরণ করে।

এছাড়াও আইইডিসিআর এর নির্দেশনা অনুযায়ী মৃত ব্যক্তিকে সংক্রমক ব্যাধি আইন অনুযায়ী দাফন করেন স্থানীয় প্রশাসন। বগুড়া জেলার সিভিল সার্জন ডাঃ গাওছুল আজিম এ প্রতিবেদককে বলেন, আইইডিসিআর থেকে পাওয়া রিপোর্ট অনুযায়ী মৃত ব্যক্তির দেহে করোনা ভাইরাস (নেগেটিভ) পাওয়া যায়নি। শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আলমগীর কবীর এ প্রতিবেদককে বলেন, ওই বাড়িসহ পার্শ্ববর্তী ২০টি বাড়িকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। প্রাপ্ত রির্পোটে করোনা ভাইরাসের জীবাণু না পাওয়ায় ঐ এলাকার লকডাউন প্রত্যাহার করে নেয়া হয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •