আবার কি সাধারণ ছুটি আসছে!

নিউজ ডেস্ক:

করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ার আশঙ্কার মধ্যেই টানা ৬৬ দিনের ছুটি শেষে গত ৩১ মে থেকে ১৫ জুন পর্যন্ত বিভিন্ন নির্দেশনা মানা সাপেক্ষে সীমিত পরিসরে সরকারি-বেসরকারি অফিস খুলে দেয়া হয়। একই সাথে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বন্ধ থাকা গণপরিবহনও (বাস, লঞ্চ ও ট্রেন) চালু হয়। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির উন্নতি নেই। বরং ক্রমেই তা অবনতিশীল। গতকাল বুধবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় দুই হাজার ৬৯৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৩৭ জন। আগের দিন একই সংখ্যক মানুষের মৃত্যু হলেও আক্রান্তের সংখ্যা ছিল বেশি, দুই হাজার ১১ জন। করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতি যদি ক্রমেই এভাবে অবনতির দিকে যায়, তাহলে সরকার ফের সাধারণ ছুটিতে ফিরে যাবে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

সংক্রমণ পরিস্থিতি ক্রমেই অবনতির দিকে গেলে ফের সাধারণ ছুটি দেয়া হবে কি না জানতে চাইলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, আমরা যদি দেখি আমাদের ব্যাপক অবনতি ঘটছে তাহলে তো আমাদের (ছুটিতে যাওয়া ছাড়া) বিকল্প কিছু থাকবে না। আমাদের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডগুলো চালিয়ে নেয়ার জন্যই এটা খুলে দেয়া হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা জানি ৮৫ শতাংশ করোনা আক্রান্ত রোগী ঘরে বসেই চিকিৎসা নিতে পারবে। সংক্রমণ যাতে না বাড়ে সে জন্য আমরা ব্যাপকভাবে চেষ্টা করছি। ছোট দেশ বিশাল জনসংখ্যা, ম্যানেজ করা কঠিন হচ্ছে। আমরা পুলিশ থেকে শুরু করে বিভিন্ন ক্ষেত্রে কঠোরতা অবলম্বন করছি।

এদিকে দীর্ঘ দুই মাসেরও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর রাজধানীতে গণপরিবহন চালুর তিন দিন না যেতেই চরম বিশৃঙ্খলা শুরু হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি, নিয়মকানুন কিছুই মানা হচ্ছে না।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) ও করোনা সংক্রান্ত মিডিয়া সেলের আহ্বায়ক মো: হাবিবুর রহমান খান বলেন, আমাদের হাতে আরো কিছুটা দিন সময় আছে। আমরা পরিস্থিতি দেখছি। পরিস্থিতির উন্নতি হলে তো কোনো সমস্যা নেই। তবে অবনতি হতে থাকলে আমরা বসে তখন করণীয় সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেবো।

  •  
  •  
  •  
  •