ভারতে করোনার পর এবার ঘাতক ছত্রাকের সংক্রমণ

মোঃ এম.এন.আজিম, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ভারতে এবার করোনার পর অন্য রোগের সংক্রমণ দেখা দিয়েছে। কোভিডজয়ীদের দুর্বল শরীরে বাসা বাঁধছে এই মারাত্বক অসুখ। এটি কোন ভাইরাস নয় বরং এটি একটি ছত্রাক- ঘাতক ‘ব্ল্যাক ফাঙ্গাস’। দিল্লি ও গুজরাটে ইতিমধ্যেই ধরা পড়েছে এই ছত্রাকের সংক্রমণের ঘটনা। কোভিডের পাশাপাশি সমানভাবে বাড়ছে এই রোগের ব্ল্যাক ফাঙ্গাস সংক্রমিতের সংখ্যাও। বিজ্ঞানের পরিভাষায় এই রোগ পরিচিত মিউকরমাইকোসিস নামে।

বিগত দু’সপ্তাহে চল্লিশটিরও বেশি ব্ল্যাক ফাঙ্গাস সংক্রমণের ঘটনা ধরা পড়েছে গুজরাটে। যাঁদের মধ্যে সম্পূর্ণ দৃষ্টিশক্তি হারিয়েছেন ৮ জন। শুধু দৃষ্টিশক্তিই নয়, রীতিমতো প্রাণঘাতী হতে পারে এই বিরল ছত্রাকের সংক্রমণ। তবে প্রাথমিক স্তরে চিকিৎসা শুরু হলেই এই রোগের পূর্ণ চিকিৎসা সম্ভব বলেই জানাচ্ছেন চিকিৎসকরা।

তবে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস নতুন কোনো রোগ নয়। কোভিডে আক্রান্ত হলে দুর্বল হয়ে পড়ে শরীর। দৈহিক প্রতিরোধ ক্ষমতাও হ্রাস পায় অনেকটাই। সেই সুযোগেই ফুসফুসে বাসা বাঁধে এই ছত্রাক। পাশাপাশি কোভিড চিকিৎসায় স্টেরয়েডের ব্যবহার আরও বাড়িয়ে দেয় ব্ল্যাক ফাঙ্গাস সংক্রমণের ঝুঁকি। বিশেষত সংকটজনক অবস্থা থেকে ফিরে আসা কোভিডজয়ীদের মধ্যেই এই ছত্রাকের সংক্রমণ চিহ্নিত করেছেন গবেষকরা।

বায়ুমণ্ডলে আমাদের অলক্ষ্যেই ঘুরে বেড়াচ্ছে এই ঘাতক ছত্রাক। নিঃশ্বাসের সঙ্গে তা শরীরে প্রবেশ করে বাসা বাঁধছে ফুসফুসে। অনেকক্ষেত্রে শরীরে ক্ষতস্থান থেকেও দেহে ঢুকে পড়ে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস। তবে সুস্থ মানুষের সাধারণ রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতাকে হারিয়ে দাপট দেখাতে পারে না এই ঘাতক জীবাণু। তবে ডায়াবেটিস, ক্যান্সার বা হৃদযন্ত্রের সমস্যা থাকলে প্রকট হয় ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের প্রভাব।

  •  
  •  
  •  
  •  
ad0.3

Tags: , ,