বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের জন্য অস্ট্রেলিয়ায় স্কলারশীপ

সবুজবাংলা ডেস্ক:
অস্ট্রেলিয়ায় মাস্টার্স পড়ার জন্য বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদেরকে স্কলারশীপ দেয়া হবে। পারস্পরিক সহযোগিতা ও সম্প্রীতি বৃদ্ধির লক্ষ্যে অস্ট্রেলিয়া সরকার সম্পূর্ণ মেধার ভিত্তিতে এ স্কলারশীপ দিবে। নির্বাচিত শিক্ষার্থী দেশটির সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্দিষ্ট কিছু বিষয়ে মাস্টার্স কোর্স পড়তে পারবে। রাউন্ড-ট্রিপ এয়ার টিকেট, টিউশন ফি, আবাসন ভাতাসহ শিক্ষার্থীর যাবতীয় খরচ কর্তৃপক্ষ বহন করবে। আবেদন করার শেষ তারিখ ১৮ নভেম্বর, ২০১৬।

বিষয়:
ফিজিক্যাল এন্ড বায়োলজিকাল সায়েন্স, ইঞ্জিনিয়ারিং
আরবান প্ল্যানিং এন্ড ট্রান্সপোর্ট ম্যানেজমেন্ট
ফাইন আর্টস (ফ্যাশন, ফিল্ম, স্ক্রিন অ্যানিমেশন, মিউজিক)
কালচারাল হেরিটেজ এন্ড প্রিজার্ভেশন

কোর্স লেভেল: মাস্টার্স কোর্স করার জন্য এ স্কলারশীপ দেয়া হবে।

বর্ণনা:
রাউন্ড ট্রিপ এয়ার-টিকেট
আবাসন ভাতা
সকল টিউশন ফি
অভ্যন্তরীণ যাতায়াত ভাতা
স্বাস্থ্য ভাতা
এ ছাড়া নাগরিক জীবনে সাধারণত প্রয়োজনীয় সকল সুবিধা এ স্কলারশীপের অন্তর্ভুক্ত।

যোগ্যতা:
আগ্রহী শিক্ষার্থীর মাস্টার্স কোর্সে আবেদন করার জন্য সাধারণত প্রয়োজনীয় সকল যোগ্যতা থাকতে হবে।
তৃতীয় বিভাগ ফলাফল গ্রহণযোগ্য হবে না।
জুন, ২০১৭ তে আবেদনকারী প্রার্থীর বয়স কমপক্ষে ১৮ বছর পূর্ণ হতে হবে।
বাংলাদেশের স্থায়ী নাগরিক হতে হবে।
বিবাহিত হওয়া চলবে না।
সেনা কর্মকর্তা আবেদন করতে পারবে না।
অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক অথবা অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসের জন্য ভিসা আবেদন করেছে এমন কেউ আবেদন করতে পারবে না।

ভাষাগত যোগ্যতা:
আগ্রহী শিক্ষার্থীকে আইএলটিএস অথবা টোফেল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। আইএলটিএস এর ক্ষেত্রে ন্যুনতম ৬.৫ স্কোর অর্জন করতে হবে। টোফেল-এ পেপার বেজ্ড পরীক্ষায় ন্যুনতম ৫৮০ ও কম্পিউটার বেজ্ড পরীক্ষায় ন্যুনতম ২৩৭ স্কোর অর্জন করতে হবে।

নির্বাচন প্রক্রিয়া:
আগ্রহী শিক্ষার্থীকে প্রথমে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। আবেদন যাচাই-বাছাই করার পর প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত সীমিত সংখ্যক শিক্ষার্থীকে ইন্টারভিউয়ের জন্য ডাকা হবে। মৌখিক ও লিখিত পরীক্ষার পর চুড়ান্তভাবে নির্বাচন করা হবে।

আবেদন করার নিয়ম:
আগ্রহী শিক্ষার্থীকে নির্ধারিত তথ্য ও ডকুমেন্ট প্রদান করে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। আবেদন করার জন্য এখানে ক্লিক করুন। এছাড়া স্কলারশীপ সংক্রান্ত আরো বিস্তারিত তথ্যের জন্য এখানে ক্লিক করুন।

Comments

comments