নাটোরে কৃষকের সাথে ধান কাটলো ছাত্রলীগ

নাটোর প্রতিনিধি:
হঠাৎ উজান থেকে নেমে আসা ঢলের পানিতে নাটোরের চলনবিলে তলিয়ে গেছে প্রায় ১৫’শ হেক্টর জমির পাকা-আঁধাপাকা ধান। চোখের সামনে কষ্টের ফসল পানির নিচে তলিয়ে গেলেও কিছুই করতে পারছে না কৃষকরা। শুধু বোরো ধান নয়, অসময়ের পানিতে বাদাম, ভুট্টা সহ অন্যান্যে ফসল পানিতে ডুবে গেছে।

এদিকে, তীব্র শ্রমিক সংকটের কারণে পাকা ধানগুলো ঘরে তুলতে পারছেনা কৃষকরা। যে কয়জন শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছে তাদের পারিশ্রমিকও তিনগুণ।

একদিকে ফসলহানী, চোখের সামনে পানির নিচে ফসল আবার অন্যিদেক শ্রমিকের মজুরি কয়েকগুণ বেশি। এমন অবস্থায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়িয়েছে নাটোর জেলা ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা।

নাটোর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম মাসুম জানান, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা চেষ্টা করছে ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্য করতে। বিশেষ করে চলনবিল এলাকায় সিংড়া উপজেলা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে ধান কাটায় অংশ নেন।

ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, ধান কাটা লোকের তীব্র সংকট দূরীকরণে কৃষকদের সঙ্গে ধান কেটে গোলায় পৌঁছে দিচ্ছে নাটোর জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন দুর্যোগে চালের বস্তা মাথায় নিয়ে মানুষের দুয়ারে দুয়ারে পৌঁছে দিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

তিনি আরো বলেন, একসময় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে সাধারণ মানুষের কল্যাণে কাজ করেছে ছাত্রলীগ। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যেকোন দুর্যোগ মোকাবেলায় সাধারণ মানুষের পাশে আছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

Comments

comments