মিঠাপুকুরে নবকলি প্রকল্পের উদ্দ্যোগে গবাদী পশুপাখীকে টীকা প্রদান

নিজস্ব সংবাদদাতা:
মা ও শিশুদের পুষ্ঠির মান উন্নয়নের লক্ষ্যে মিঠাপুকুরে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ নবকলি প্রকল্পের আওতায় রানীপুকুর ও দুর্গাপুর ইউনিয়নে কাজ করে আসছে। এই প্রকল্পের অর্থনৈতিক উন্নয়ন কার্যক্রমের আওতায় ২২৫ জন উপকারভোগীদের মাঝে মুরগী ও ৩৮ জন উপকারভোগীদের মাঝে ছাগল বিতরন করা হয়েছিল। তারি ধারাবাহিকতায় নবকলি প্রকল্প উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয়ের সার্বিক সহযোগিতায় এ মৌসুমে উক্ত উপকারভোগীর ও তাদের এলাকার অন্যান্য গবাদী পশুপাখীর টীকা প্রদান কর্মসূচী চালিয়ে যাচ্ছে এবং পশুপাখীর এ টীকা গ্রহনে এলাকাবাসীকে সচেতন করে যাচ্ছে।

উক্ত কর্মসূচী আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন নবকলি প্রকল্পের অর্থনৈতিক উন্নয়ন কর্মকর্তা মোঃ মোর্শেদুল আলম (ডিভিএম)। এরফলে উপকারভোগী ও এলাকাবাসীর মাঝে ব্যপক সাড়া পরিলক্ষিত হচ্ছে যা অত্র এলাকার গবাদী পশুপাখীর প্রাণ রক্ষার পাশাপাশি অধিক উৎপাদনে তাদের পরিবারের চাহিদা মিটিয়ে আর্থিকভাবে লাভবান হবে করবে বলে আশা করা যায়।

এব্যপারে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ এনামুল হক জানান, “অপুষ্ঠি দূরিকরনে নবকলি প্রকল্পের ভূমিকা প্রশংসনীয়, এ টীকা প্রদান কর্মসূচীর সুফল এলাকাবাসী পাবে”।

পপি বেগম, উপকারভোগী নবকলি প্রকল্প বলেন, “আমি আগে আমার মুরগী মারা যেত জানতামনা যে পশুপাখীর টীকা হয়, কিন্তুু নবকলি প্রকল্প থেকে প্রশিক্ষণ পেয়ে এখন আমি তা জানি এবং মানি, এবার আমার কোন মুরগীই মারা যায়নি”।

Comments

comments