সাদুল্যাপুরে বিরল প্রজাতির শকুন উদ্ধার

জিল্লুর রহমান পলাশ, গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলায় বিরল প্রজাতির একটি শকুন উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। সাদুল্যাপুর উপজেলার বনগ্রাম ইউনিয়নের উত্তর কাজীবাড়ি সন্তোলা গ্রাম থেকে বুধবার সকালে শকুনটি উদ্ধার করা হয়। পরে স্থানীয়রা বুধবার দুপুরে শকুনটিকে সাদুল্যাপুর উপজেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা মো. রেজাউল করীমের কাছে হস্তান্তর করেছেন।

উত্তর কাজীবাড়ি সন্তোলা গ্রামের আল-আমিন, অপু, বেলাল, সাজ্জাদ ও মেহেরাজ জানান, হাঠাৎ করে শকুনটি মঙ্গলবার বিকেলে উত্তর কাজীবাড়ি সন্তোলা গ্রামে দেখতে পায় তারা। পরে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় দীর্ঘ চেষ্টা করে শকুনটি ধরা হয়। এরপর শকুনটিকে তারা সাদুল্যাপুর বন বিভাগে হস্তান্তর করেন।

সাদুল্যাপুর উপজেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা মো. রেজাউল করীম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, স্থানীয়দের হাতে ধরা পড়া শকুনটির অবস্থা খারাপ হয়েছে। সেকারণে শকুনটিকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও খাবার দেওয়া হয়েছে। শকুনটির দৈর্ঘ্য প্রায় ১০ ফুট, প্রস্ত ৪ ফুট ও ওজন ১২-১৫ কেজি হবে।

তিনি আরও জানান, শকুন সংরক্ষণে গাইবান্ধা জেলায় কোন ব্যবস্থা নেই। তাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে শকুনটিকে বন্য প্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ রাজশাহী রেঞ্জে পাঠানো হয়েছে।

ভালচার (Vulture) নামে এ বিরল শকুনটি এখন আর দেখা যায় না। বিরল এ প্রজাতির শকুনটি এখন বিলপ্তির পথে। দেশ স্বাধীনের আগে শকুনের আনাগোনা লক্ষ্য করা গেলেও এখন আর তেমনটা চোখে পড়ে না। প্রতিকূল পরিবেশের কারণে তারা হারিয়ে যাচ্ছে।

Comments

comments