সাহিত্যে নোবেল পেলেন কাজুও ইশিগুরো

সাহিত্য ডেস্ক:
২০১৭ সালে সাহিত্যে নোবেল পেয়েছেন জাপানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ সাহিত্যিক কাজুও ইশিগুরো। তবে নোবেল সাহিত্য পুরস্কারটি কোনো একটি সাহিত্যকর্মের জন্য নয় বরং লেখকের সামগ্রিক সাহিত্যকীর্তির জন্য দেওয়া হয়েছে।

পুরস্কার ঘোষণার সময়ে সুইডিশ একাডেমির পক্ষ থেকে কাজুও ইশিগুরোকে ‘অব্যক্ত আবেগের রূপকার’ হিসেবে সংজ্ঞায়িত করে বলা হয়, ‘তিনি তার প্রচণ্ড আবেগভরা উপন্যাসগুলোর মাধ্যমে এই দুনিয়া সম্পর্কিত ভাব-কল্পনার নিচের অতল গহ্বরের সাথে আমাদের সংযোগ ঘটিয়েছেন।’

কাজুও ইশিগুরো এ পর্যন্ত মোট আটটি উপন্যাস লিখেছেন, যা ৪০টির বেশি ভাষায় অনূদিত হয়েছে। উপন্যাসগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলো ‘দ্য রিমেইন্স অব দ্য ডে’ এবং ‘নেভার লেট মি গো’। এই দুটি উপন্যাস অবলম্বনে চলচ্চিত্রও তৈরি হয়েছে।

নোবেল জয়ের খবরের প্রতিক্রিয়ায় কাজুও ইশিগুরো বলেন, ‘আমি অবাক হয়েছি, হতবিহ্বল হয়ে পড়েছি। এটা অবশ্যই দারুণ সম্মানের বিষয়, এমন পুরস্কার জয় করা মানে বড় বড় লেখকদের পাশে আমাকে দাঁড় করানো। যারা বিশ্বজুড়ে দামী লেখক, তাদের কাতারে আমাকে রাখা হচ্ছে- এটা অবশ্যই অনেক প্রশংসনীয়।’

ইশিগুরো কাজুও একাধারে সাহিত্যিক, চিত্রনাট্যকার ও ছোটগল্পকার। ১৯৫৪ সালে নাগাসাকি শহরে জন্ম নেওয়া কাজুও পাঁচ বছর বয়সে ইংল্যান্ডে আসেন। ২০১৫ সালে ‘দ্য ব্যুরিড জায়ান্ট’ (সমাহিত দানব) নামে তার সর্বশেষ উপন্যাসটি প্রকাশিত হয়। এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের বিখ্যাত টাইম ম্যাগাজিন ইশিগুরোকে ১৯৪৫ সালের পরের শ্রেষ্ঠ ৫০ জন ব্রিটিশ লেখকদের তালিকায় ৩২তম হিসেবে উপস্থাপন করে।
প্রতিভাবান এই সাহিত্যিক এর আগেও চারটি উপন্যাসের জন্য চার বার ম্যান বুকার পুরস্কার অর্জন করেছিলেন। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে তিনি ‘অর্ডার অব দ্য ব্রিটিশ এম্পায়ার’ ও ‘কস্টা বুক অব দ্য ইয়ার’ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

 

সূত্র: theguardian

Comments

comments