নাসার ইনভেন্টর অব দ্য ইয়ার হলেন বাংলাদেশি সুলতানা

নিউজ ডেস্কঃ

সব বাধা পেরিয়ে, সব সীমা ছাড়িয়ে এবার বিশ্ববাসীর কাছে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করে দিল বাংলাদেশি সুলতানা। পৃথিবীর অন্যান্য মেধাবীদের টেক্কা দিয়ে এবার নাসার ইনভেন্টর অব দ্য ইয়ার হিসেবে মনোনীত হয়েছে নাসার কনিষ্ট নারী কর্মকর্তা মাহমুদা সুলতানা। সুলতানাকে নিয়ে নাসা কর্মকর্তারা জানায়, তারা সুলতানার মতো এত অল্প বয়সী নারীকে এর আগে কখনো নাসায় কাজ করতে দেখেনি।
এদিকে নাসার গডার্ড এর প্রধান কর্মকর্তা পিটার হিউজেস বলেন, ‘এ বছর মাহমুদা সুলতানার মতো মেধাবীকে ‘গডার্ড এফওয়াই ১৭ আইআরএডি ইনভেন্টর অব দ্য ইয়ার’ এ মনোনীত করতে পেরে আমরাও গর্বিত। কারণ নাসার যে কয়েকটা কাজে সুলতানা অংশগ্রহণ করেছেন তার প্রত্যেকটিতেই অসাধারণ সৃজনশীলতার পরিচয় দিয়েছে তিনি। তাঁর চমৎকার পারদর্শিতার কারণে, আমরা আশা করছি খুব শিগগিরই সুলতানা নাসার একজন ন্যানো-টেকনোলজি বিশেষজ্ঞ হবেন।
নাসার ‘Goddard’s FY17 IRAD Innovator of the Year’ হিসেবে মনোনীত হওয়া ছাড়াও, নাসায় যোগদান করার খুব অল্প সময়ের মধ্যে সুলতানা পর পর ১০টি নাসার অভ্যন্তরীণ প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। বাংলাদেশি তরুণী মাহমুদা সুলতানা ক্যামিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া’র সাউথার্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশুনা শেষ করেন। এরপর ২০১০ সালে তিনি মাস্যাচুসেট্স ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি থকে ক্যামিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং উপর পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করে, তারপর একই সালে (২০১০ সাল) নাসার গডার্ড এ গ্রাফিন (এক ধরনের পারমাণবিক স্কেল) নিয়ে কাজ করার সুযোগ পান তিনি। গ্রাফিন নিয়ে সুলতানার বেশ সৃজনশীলতার পারদর্শিতা দেখে ২০১৭ সালে নাসা কর্তৃপক্ষ তাঁকে ‘Goddard’s FY17 IRAD Innovator of the Year’ হিসেবে মনোনীত করে। নাসায় সুলতানার সৃজনশীলতার অবদান রয়েছে বলেও জানায় নাসা কর্তৃপক্ষ।

Comments

comments