ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর জন্য ঘর ভাঙছে সৌদি দম্পতির!

স্পোর্টস ডেস্কঃ

চলতি বছরের আগস্টে স্প্যানিশ সুপার কাপের প্রথম লেগে ন্যু ক্যাম্পে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে ৩-১ গোলের ব্যবধানে হারে বার্সেলোনা। ওই ম্যাচে একটি গোলও করেন রোনালদো। প্রিয় দল জেতার আনন্দে এক সৌদি নারী তার বার্সা সমর্থক স্বামীর সামনেই রিয়াল মাদ্রিদের পর্তুগীজ অধিনায়ক ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর প্রশংসায় ফেটে পড়েন।
একে তো প্রিয় দল হেরেছে তার উপর চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দলের সেরা খেলোয়াড়ের প্রশংসা। সব মিলিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্বামী। এমনকি ক্ষুব্ধ স্বামী তার স্ত্রীকে শারীরিকভাবে নির্যাতনও করেন। স্বামীর হাতে নির্যাতিত হয়েই সেই সৌদি নারী ডিভোর্সের আবেদন করে বসেন। সম্প্রতি দেশটির সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে ডিভোর্সের আবেদনটি চোখে পড়ার পর এমন ঘটনা প্রকাশ্যে আসে।
ডিভোর্সের আবেদনে সেই সৌদি নারী অভিযোগ করেন, স্বামীর অপছন্দের দল ও সেই দলের খেলোয়াড়কে সমর্থন করায় বেশ ক্ষেপে যান তিনি এবং শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করেন। ২০ বছর বয়সী সেই সৌদি নারীর এক বান্ধবী সেদিন এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন।
তার ভাষ্যমতে, ‘রিয়াল জিততেই আমার বান্ধবী আনন্দে আত্মহারা হয়ে যায়। লাফালাফি করার ফাঁকে ফাঁকে সে জোরে জোরে রোনালদো বলে চিৎকার করছিল। প্রশংসাও ঝড়ছিল তার মুখে। কিন্তু তার স্বামী রেগে আগুন হয়ে গিয়েছিল। প্রথমে সে তার স্ত্রীকে অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে। পরবর্তীতে তার গায়েও হাত তোলে।’
এরপর সেখান থেকে নিজের বাবা-মার কাছে চলে যান সেই সৌদি নারী। এবং বাড়িতে বসেই স্বামীর বিরুদ্ধে ডিভোর্স আবেদন করেন। যদিও দুই পরিবারের সদস্যরা তাকে অনেক বোঝানোর চেষ্টা করে। কিন্তু কোন কাজ হয়নি। বার্সেলোনা সমর্থক সেই স্বামীর সঙ্গে আর কিছুতেই এক ছাদের নিচে বসবাস করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন রিয়াল সমর্থক সেই সৌদি নারী।

Comments

comments