নওগাঁয় মেয়েদের জন্য সেরা বিদ্যালয় পুরস্কার প্রদান ২০১৭ অনুষ্ঠিত

মোঃখালেদ বিন ফিরোজ,নওগাঁ প্রতিনিধি :

নওগাঁর পত্নীতলায় দি হাঙ্গার প্রজেক্ট বাংলাদেশের আয়োজনে এবং নারী ও কন্যাশিশুর নেতৃত্বে বিশ্ব এর সহযোগিতায় মেয়েদের জন্য সেরা বিদ্যালয় ক্যাম্পেইন উদ্যোগের বার্ষিক পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে।মঙ্গলবার সকাল ১০:৩০ টায় পত্নীতলায় উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মো. মুরশিদ আলমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পত্নীতলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল মালেক, বিশেষ অতিথি হিসেবে যথাক্রমে মরিয়ম বেগম শেফা, ভাইস চেয়ারম্যান পত্নীতলায় উপজেলা পরিষদ, মাহমুদা সুলতানা – উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার,  জয়নাল আবেদিন ও গণগবেষণা ফোরাম সভাপতি শাহীনুর রহমান প্রমূখ।

বার্ষিক পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী বক্তব্যে সভাপতি এবং উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এসএম ওয়াজেদ আলী মৃধা বলেন ”মেয়েদের জন্য সেরা বিদ্যালয় ক্যাম্পেইন উদ্যোগের ফলে পত্নীতলায় উপজেলায় বাল্যবিবাহ কমে গিয়েছে এবং বিদ্যালয় ও মাদ্রাসাগুলোতে শিক্ষার গুণগতমান বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন অভিভাবকরাও বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের নিয়মিত খোঁজ-খবর রাখছেন। ফলে সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা এগিয়ে চলেছে। আমি আশা করি প্রতিষ্ঠান প্রধানগণ নিজেদের সেরা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গর্ববোধ করবেন এবং নির্ধারিত নির্ণায়কের ভিত্তিতে প্রাপ্ত নম্বর পর্যালোচনা করে নিজেদের সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে উঠবেন।

প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল মালেক বলেন সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে আদর্শ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। এক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর নিজস্ব একটা কর্ম-পরিকল্পনা থাকা আবশ্যক। শিক্ষার গুণগত মান নিশ্চিত করা এবং মেয়েদের বিদ্যালয়ে ধরে রাখার দায়িত্ব শুধু শিক্ষক এবং অভিভাবকদের নয়, এক্ষেত্রে অভিভাবক, এনজিও এবং বিদ্যালয় ও মাদ্রাসা ব্যবস্থাপনা কমিটির দায়িত্বও রয়েছে। দি হাঙ্গার প্রজেক্ট সেই কাজটি করে চলেছে। আমাদের সবার উচিত হবে শিক্ষার্থীদের স্বার্থের দিকটি বিবেচনা করা। আজকের শিক্ষার্থী আগামি দিনে বাংলাদেশকে স্বনির্ভরতায় ভরিয়ে তুলবে। আপনারা সবাই সেরা, আজকে অন্যদের সেরা ঘোষণার মধ্যদিয়ে আপনারা অপরকে সুযোগ করে দিলেন। আজকের দিনে আমি সেই সৌভাগ্যের সাক্ষী হয়ে থাকলাম।

২০১৭ সালের সেরা উদ্যোগী শিক্ষক হিসেবে পুরষ্কৃত হন বাঁকরইল বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাসেদ আলী, কাদিয়াল সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক গোলাম রাব্বানী, চকমুলি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সনজিত কুমার মন্ডল এবং পাটুল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাহাঙ্গীর আলম।

এ বছর শিক্ষার্থীদের উদ্যোগের দৃষ্টান্ত হিসেবে সেরা ইউনিট পুরষ্কার পায় গগনপুর উচ্চ বিদ্যালয় ইউনিট, চকফরিদ মেহেরুল্লাহ দাখিল মাদ্রাসা, নিরমইল দারাজিয়া দাখিল মাদ্রাসা এবং সন্তোষপাড়া দাখিল মাদ্রাসা। পাঁচটি নির্ণায়কের ভিত্তিতে ২০১৭ সালে সেরা বিদ্যালয় হিসেবে পুরষ্কৃত হন মেয়েদের স্কুলে অংশগ্রহণ ও পড়াশুনার উন্নত মানের জন্য – পত্নীতলায় উচ্চ বিদ্যালয়, মেয়েদের নেতৃত্বের বিকাশের জন্য – খিরসীন এসকে উচ্চ বিদ্যালয়, সহায়ক পরিবেশের জন্য – বামইল উচ্চ বিদ্যালয়, সামাজিক নিরাপত্তার জন্য গাহন উচ্চ বিদ্যালয় এবং কার্যকর শিক্ষক, অভিভাবক সভার জন্য পুঁইয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়।

Comments

comments