স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে তরুণীর অনশন

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি:
গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে দু’দিন ধরে অনশন পালন করছেন প্রেমিকা। এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, কোটালীপাড়া উপজেলার সিতাইকুন্ড গ্রামের আকবর আলী শেখের ছেলে আরমান শেখ নিক্সনের (২৫) সাথে মান্দ্রা গ্রামের সিদ্দিক তালুকদারের মেয়ে কাকলী খানমের (১৯) দীর্ঘ দিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল।

বিষয়টি জানাজানি হয়ে যাওয়ায় চার মাস আগে সিদ্দিক তালুকদার তার মেয়ে কাকলীকে জোর করে পার্শ্ববর্তী আশুতিয়া গ্রামে বিয়ে দিয়ে দেন। কিন্তু বিয়ের দু’দিন পরে কাকলী স্বামীর ঘর ছেড়ে সাবেক প্রেমিক আরমানের সাথে ঢাকায় পালিয়ে যান। ঢাকায় পালিয়ে থাকা অবস্থায় আরমানের কথায় কাকলী স্বামীকে ডিভোর্স দেন। এরপর গত ডিসেম্বরের ১৮ তারিখ আরমান কাকলীকে বিয়ে করেন।

বিয়ের কিছুদিন পর আরমান কাকলীকে তার ভাইয়ের বাসায় রেখে এসে কাকলীর সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। এর পরে কাকলী বিভিন্নভাবে আরমানের সাথে যোগাযোগ করতে ব্যর্থ হয়ে কোটালীপাড়ার সিতাইকুন্ড গ্রামে আরমানদের বাড়িতে এসে ওঠেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, আরমানের ঘরের সামনে কাকলীকে বসে আছেন।

এ সময় কাকলী বলেন, আমার এ ভাবে চলে আসা ছাড়া কোনো উপায় ছিল না। আমাকে এ বাড়িতে দেখে আরমান কিছু না বলেই পালিয়ে গেছে। ও আমাকে স্ত্রীর স্বীকৃতি না দিলে আমি আত্মহত্যা করবো।

এ ব্যাপারে আরমানের পিতা আকবার আলী শেখ বলেন, আরমান ও কাকলীর বিয়ের বিষয়ে আমাদের কিছু জানা নেই। মঙ্গলবার সকাল থেকে আমরা আরমানের মোবাইল ফোন বন্ধ পাচ্ছি। আরমানের সাথে যোগাযোগ না করা পর্যন্ত আমরা কাকলীর ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবো না।

Comments

comments