বাকৃবি শিক্ষক সমিতি নির্বাচনে ব্যালটের গোপনীয়তা ভঙ্গের অভিযোগ

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি) শিক্ষক সমিতি নির্বাচনে ব্যালটের গোপনীয়তা ভঙ্গের মাধ্যমে আচারণ বিধি লঙ্ঘন করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি ও জামায়াতপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন ‘সোনালী দল’। অভিযোগে বলা হয়, ব্যালট পেপারে QR Code ও সিরিয়াল নম্বর ব্যবহার করা হয়েছে- যা নির্বাচন বিধির লঙ্ঘন।

বুধবার রাত ৯টায় নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণা করার পর বিশ্ববিদ্যালয় ক্লাবে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন সোনালী দলের নেতাকর্মীরা।

অভিযোগে আরও বলা হয়, QR Code ও সিরিয়াল নম্বর যোগ করার সিদ্ধান্ত সোনালী দলের নির্বাচন পরিচালনা কমিটিকে পূর্বে জানানো হয়নি। বিগত নির্বাচনে কোন সময়ই ব্যালটে এসব ব্যবহার করা হয়নি।

ব্যালটের সিরিয়াল নম্বরের মাধ্যমে সদ্য নিয়োগপ্রাপ্ত প্রভাষকরা কাকে ভোট দিয়েছেন জানা যাবে বলে তাদের ভয়ভীতি দেখিয়ে ভোট আদায় করেছে আওয়ামীপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন গণতান্ত্রিক শিক্ষক ফোরাম। এতে আমাদের নির্বাচন ফলাফলের উপর প্রভাব পড়েছে। গত ২৭ বছরের নির্বাচন ফলাফলে কোনবার এরকম ঘটনা ঘটেনি।

এ বিষয়ে গণতান্ত্রিক শিক্ষক ফোরামের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল আলম বলেন, সিরিয়াল নম্বরের বিষয়ে আমরা কিছু জানতাম না। আমরা কাউকে ভয়ভীতি দেখাইনি।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার অধ্যাপক ড. মো. মোশাররফ হোসেন বলেন, কতগুলো ভোট প্রয়োগ হয়েছে- তা জানার জন্য সিরিয়াল নম্বর ব্যবহার করা হয়েছে। আর QR Code এ শুধুমাত্র BAUTA Election 2018, January 17 রয়েছে। ব্যালটে কে কাকে ভোট দিয়েছেন তা জানার কোন উপায় নেই। দ্রুতই ব্যালট নষ্ট করে দেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, বুধবার বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পায় আওয়ামীপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন গণতান্ত্রিক শিক্ষক ফোরাম। ২৭ বছর পর নির্বাচনে গণতান্ত্রিক শিক্ষক ফোরাম ১১টি পদের সবগুলোতে জয়ী হয়েছে।

Comments

comments