ফরীদি-কাঞ্চনসহ একুশে পদক পাচ্ছেন ২১ জন

নিজস্ব প্রতিবেদক:
বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ দেশের ২১ জন বিশিষ্ট নাগরিককে ২০১৮ সালের একুশে পদক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

বৃহস্পতিবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, অভিনেতা হুমায়ূন ফরিদী (মরণোত্তর) এবং ইলিয়াস কাঞ্চনসহ ২১ জনের নাম ঘোষণা করেছে।

ভাষা আন্দোলনে আ. জা. ম. তকীয়ুল্লাহ (মরণোত্তর) ও অধ্যাপক মির্জা মাজহারুল ইসলাম। শিল্পকলায় সঙ্গীত বিভাগে শেখ সাদী খান, সুজেয় শ্যাম, ইন্দ্র মোহন রাজবংশী, মো. খুরশীদ আলম, মতিউল হক খান।

শিল্পকলার নৃত্য বিভাগে বেগম মীনু হক (মীনু বিল্লাহ), অভিনয়ে হুমায়ুন ফরিদী (হুমায়ুন কামরুল ইসলাম), নাটকে নিখিল সেন (নিখিল কুমার সেনগুপ্ত), চারুকলায় কালিদাস কর্মকার, আলোকচিত্রে গোলাম মুস্তাফার নাম এসেছে।

সাংবাদিকতায় একুশে পদকের জন্য মনোনীত হয়েছেন রণেশ মৈত্র। গবেষণায় মনোনীত হয়েছেন ভাষা সৈনিক প্রফেসর জুলেখা হক। অর্থনীতিতে ড. মিইনুল ইসলাম, সমাজসেবায় ইলিয়াস কাঞ্চনের নাম ঘোষণা করেছে সরকার।

ভাষা ও সাহিত্যে সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম খান (কবি হায়াৎ সাইফ), সুব্রত বড়ুয়া, রবিউল হুসাইন ও মরহুম খালেকদাদ চৌধুরী।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০ ফেব্রুয়ারি ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে একুশে পদক দিবেন বলে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের আদেশে জানানো হয়েছে।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পুরস্কার হচ্ছে একুশে পদক। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ গত বছরের ৮ আগস্ট সংশোধিত ‘জাতীয় পুরস্কার/পদক সংক্রান্ত নির্দেশাবলী’তে স্বাধীনতা পুরস্কার, একুশে পদক, বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কার, বেগম রোকেয়া পদক, জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কারের অর্থ বৃদ্ধি করে।

আগে ১৮ ক্যারেট মানের পঞ্চাশ গ্রাম স্বর্ণের পদক, পদকের একটি রেপ্লিকা ও একটি সম্মাননাপত্রের সঙ্গে এক লাখ টাকা দেওয়া হত। অর্থ বাড়িয়ে দুই লাখ টাকা করা হয়।

Comments

comments