রোহিঙ্গাদের জন্য ১০ হাজার শৌচাগার-গোসলখানা বানাবে ইউনিসেফ

নিউজ ডেস্ক:

কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আরও পাঁচ হাজার শৌচাগার এবং মেয়েদের জন্য পাঁচ হাজার গোসলখানা নির্মাণ করে দেবে ইউনিসেফ (ইউনাইটেড নেশন্স ইন্টারন্যাশনাল চিলড্রেনস ইর্মাজেন্সি ফান্ড)।

এজন্য সোমবার দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ইউনিসেফ। এতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের পক্ষে যুগ্ম-সচিব হাবিবুল কবির চৌধুরী ও ইউনিসেফের পক্ষে কান্ট্রি ডিরেক্টর অ্যাডওয়ার্ড বিগবেদার চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এ সময় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ সচিব শাহ কামাল উপস্থিত ছিলেন।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এর আগে ইউনিসেফ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ১০ হাজার শৌচাগার নির্মাণ করে দিয়েছিল।

জাতিগত নিপীড়নে পালিয়ে আসা মিয়ানমারের কয়েক লাখ রোহিঙ্গা দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশে বসবাস করছেন। মিয়ানমারের সীমান্তে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর চেক পোস্টে হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে গত বছরের ২৫ আগস্ট থেকে নতুন করে রাখাইনে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর উপর অভিযান চালায় দেশটির সেনাবাহিনী। তখন থেকে রোহিঙ্গারা জীবন বাঁচাতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসছে।

কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের ১২টি অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্রে ঠাঁই হয়েছে রোহিঙ্গাদের। এদের সবাইকে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধনের আওতায় আনছে বাংলাদেশ সরকার। কক্সবাজারের শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনের সর্বশেষ রিপোর্ট অনুযায়ী, বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত রোহিঙ্গাদের সংখ্যা প্রায় ১১ লাখ।

Comments

comments