রাজবাড়ীতে বেড়েছে পেঁয়াজের আবাদ: ভাল দামের আশায় চাষিরা

রাজবাড়ী প্রতিনিধি:

বাঙালির রান্নার কাজে পেঁয়াজের ভূমিকা অনস্বীকার্য। আর সেই মসলা জাতীয় ফসল পেঁয়াজের মূল ভিত্তি হচ্ছে বীজ। গেল বছরের তুলনায় এ বছর রাজবাড়ীতে পেঁয়াজ বীজের চাষ কম হলেও ফলন ভাল হওয়ায় দাম পাবেন বলে আশাবাদী চাষিরা।

রাজবাড়ীতে সারাদেশের তুলনায় প্রায় ১৩ শতাংশ পেঁয়াজ উৎপাদন হয়। তবে পেঁয়াজ উৎপাদন হলেও তার পাশাপাশি বীজ চাষেও আগ্রহী ছিলেন চাষিরা। কিন্তু গেল বছরে বীজের দাম কম পাওয়ায় এ বছর চাষ কমেছে কিন্তু বেড়েছে পেঁয়াজ চাষ। তবে আবহাওয়া ভালো থাকায় পেঁয়াজ বীজের ফলন ভালো হয়েছে।

একাধিক পেঁয়াজ বীজ চাষিরা জানান, জমি তৈরি থেকে শুরু করে বীজ, সার, কীটনাশক, সেচ, দিন মজুর ও ফসল উত্তোলন করা পর্যন্ত বিঘা প্রতি খরচ হয় তাদের ৪০ থকে ৫০ হজার টাকা এবং প্রতি বিঘায় প্রায় বীজ উৎপাদন হয় দুই থেকে আড়াই মন। এ থেকে তারা দেড় থেকে দুই লাখ টাকার বীজ বিক্রি করতে পারবেন বলে মনে করছেন।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্র জানায়, এ বছর রাজবাড়ীর পাঁচ উপজেলার বিভিন্নস্থানে ১৯৫ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ বীজের চাষ হয়েছে এবং গত বছর চাষ হয়েছিল ২২০ হেক্টর জমিতে। জেলার প্রায় ৬ হাজার কৃষক পেয়াজ বীজ চাষের সঙ্গে জড়িত।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক মো. ফজলুর রহমান জানান, গত বছর পেঁয়াজ বীজের দাম কম হওয়ায় এ বছর বীজের চাষ কিছুটা কম হয়েছে। তবে এ বছর পেঁয়াজের চাষ বেশি হওয়ায় পেঁয়াজ বীজের দাম ভালো পাবেন চাষিরা। আবহাওয়া ভালো থাকায় বীজের ফলনও ভালো হয়েছে।

Comments

comments