বাদ পড়েও সন্তুষ্ট ‘তারকা কোচ’ আলিউ সিস

স্পোর্টস ডেস্ক:
তারকা খেলোয়াড়দের ছাপিয়ে একজন কোচও যে বড় তারকা হয়ে উঠতে পারেন রাশিয়া বিশ্বকাপে সেই দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন সেনেগাল বস আলিউ সিস। জাপানের সাথে পয়েন্ট ও গোল ব্যবধানে সমান থাকার পরেও শুধু হলুদ কার্ড বেশি দেখার কারণে নক-আউট পর্বে যেতে পারেনি সেনেগাল। গতকাল তারা হেরেছে কলম্বিয়ার কাছে। তবে এই বিদায়ে হতাশ হলেও একেবারে অসন্তুষ্ট নন আলিউ সিস। তার মতে, সঠিক পথেই আছে শিষ্যরা।

তিনি বলেছেন, ‘আফ্রিকান ফুটবল অনেক এগিয়েছে। আমরা সেই পথেই এগুচ্ছি। আমি নিশ্চিত, ভবিষ্যতে আমরা ভাল করব। আমরা সঠিক পথেই আছি।’

এইচ’ গ্রুপের নক-আউটে ওঠার লড়াইয়ে গতকাল মুখোমুখি হয়েছিল কলম্বিয়া-সেনেগাল এবং পোল্যান্ড-জাপান। দুই লড়াইয়ে কলম্বিয়া, জাপান আর সেনেগাল- তিন দলের সামনেই ছিল শীর্ষস্থানের হাতছানি। আবার ছিল বাদ পড়ার শঙ্কাও। শেষ পর্যন্ত হিসাব যা দাঁড়ায়, তাতে সেনেগালের আফসোস করা ছাড়া কিছু করার ছিল না। পয়েন্ট এবং স্কোরলাইন এক হলেও জাপানের হলুদ কার্ড ছিল ৪টি আর সেনেগালের ৬টি। এটাই গড়ে দেয় ব্যবধান।

ফিফার ‘ফেয়ার প্লে’ আইনের কোপ পড়ে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেওয়া সেনেগাল কোচ আরও বলেন, ‘আমি জানি না এই নিয় (ফেয়ার প্লে) নিষ্ঠুর কিনা। কিন্তু আমি আমার খেলোয়াড়ের হলুদ কার্ড না খাওয়ার জন্য বলতে পারি না। এটা ফুটবলের আইন। ফেয়ার প্লের আইন। এবং আমরা এ ক্ষেত্রে কিছুটা পিছিয়ে ছিলাম। আমাদের এটা মেনে নিতে হবে।’

Comments

comments