হলের দোতলা থেকে পড়ে বাকৃবি শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যু

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) আবাসিক হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের দোতলা থেকে পড়ে বায়জিদ মাহমুদ (২২) নামের এক শিক্ষার্থী আহত হন। পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে নিয়ে যাওয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষাণা করেন।

রবিবার রাত ১২ টার দিকে ওই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। পরে রাত ১ টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

বায়জিদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি অনুষদের লেভেল-৪, সেমিস্টার-১ এর শিক্ষার্থী। তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইল জেলায়। তারা পিতা মো. সাইফুল ইসলাম।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের ডি ব্লকের রেলিং এ বসে ফোনে কথা বলতে বলতে অন্যমনস্ক হয়ে নিচে পড়ে যায় বায়জিদ। এতে মাথায় বড় রকমের চোট পান তিনি। প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। পরে হলের শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (মমেক) নিয়ে যায়।

হাসপাতালের জরুরী বিভাগের দায়িত্বরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। হাসপাতালে ওই হলের প্রভোস্ট প্রফেসর ড. মো. জাহাঙ্গীর আলম ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. মো. আতিকুর রহমান খোকন উপস্থিত ছিলেন।

প্রক্টর প্রফেসর ড. মো. আতিকুর রহমান খোকন বলেন, এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনার কথা তার পরিবারকে জানানো হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা এলে লাশ হস্তান্তর করা হবে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বায়জিদের মৃতদেহ মমেক হাসপাতালের লাশঘরে রাখা হয়েছে। এদিকে বায়জিদের আকস্মিক মৃত্যুতে বিশ্ববিদ্যালয়ে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Comments

comments