রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে মিয়ানমারে ওপর চাপ আরোও বাড়াবে: জাতিসংঘ মহাসচিব

নিজস্ব প্রতিবেদক:
রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মিয়ারমারের ওপর চাপ অব্যহত রাখার আশ্বাস দিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তনিও গুতিয়েরেস।

রোববার (০১ জুলাই) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তনিও গুতিয়েরেস ও বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম এর সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। ওই বৈঠকেই এ আশ্বাস দেন জাতিসংঘ মহাসচিব।

পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

জাতিসংঘের মহাসচিব ও বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবির পরিদর্শনে বাংলাদেশে আসেন। সোমবার (০২ জুলাই) কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে যাওয়ার আগে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এ সৌজন্য সাক্ষাত করেন তারা।

প্রেস সচিব বলেন, রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মিয়ানমারের ওপর চাপ অব্যাহত রাখা এবং বাংলাদেশকে সহযোগিতা করতে জাতিসংঘ মহাসচিব ও বিশ্বব্যাংক প্রধান তাদের সংকল্পের কথা পুনর্ব্যক্ত করেন।

মানবিক দিক বিবেচনা করে ১০ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিতে বাংলাদেশের মহানুভবতার প্রশংসা করেন এবং এ সংকটে বিশ্ব সম্প্রদায় বাংলাদেশের পাশে রয়েছে বলে জানান তারা।

জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, মিয়ানমারের ওপর চাপ অব্যাহত রেখেছি। আমাদের এই চাপ আরোও বাড়াতে হবে। যাতে মিয়ানমার বুঝতে পারে রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে তাদের কী করা উচিত।

এ সময় ১৯৭৭ সাল থেকে বিভিন্ন সময় বাংলাদেশে রোহিঙ্গা শরণার্থী আসার বিষয়টি তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তনে বাংলাদেশের সঙ্গে করা চুক্তি বাস্তবায়নে মিয়ানমার কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে বলে মনে হচ্ছে না।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের স্বাস্থ্যসহ সকল মৌলিক অধিকার নিশ্চিতে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগের কথা তুলে ধরেন তিনি। বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা আশ্রয় দেওয়ায় স্থানীয় জনগণের অসুবিধার কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, এক লাখ রোহিঙ্গাকে ভাষানচরে স্থানান্তরের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিকদের বাংলাদেশে আশ্রয় দেওয়ায় সরকারের প্রশংসা করে জাতিসংঘ মহাসচিব শরণার্থী শিবিরে তাদের শিক্ষার ব্যবস্থা নিয়ে তিনি শেখ হাসিনার সঙ্গে কথা বলেন। রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে অব্যাহত সহযোগিতার জন্য জাতিসংঘেরও প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, শুধুমাত্র মানবিক দিক বিবেচনায় মিয়ানমারের এসব নাগরিককে বাংলাদেশে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে।

উন্নয়ন ও মানবিক ইস্যুতে বাংলাদেশের সঙ্গে কাজ করার কথা বলেন বিশ্ব ব্যাংক প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম। বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের জন্য বিশ্ব ব্যাংক ইতোমধ্যে বাংলাদেশকে ৪৮ কোটি ডলার সহায়তার দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে।

স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উঠে আসার পরও বিশ্ব ব্যাংকের বোর্ডে বাংলাদেশকে কনসেশন রেটে ঋণ দেওয়ার কথা বলবেন বলে জানান সংস্থাটির প্রেসিডেন্ট। জাতিসংঘ মহাসচিব ও বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট দুই জনই বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের প্রশংসা করেন।

১৯৭৪ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণ দেওয়ার একটি ছবি প্রধানমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন জাতিসংঘ মহাসচিব।

Comments

comments