তালাকের নোটিশ, ভাঙনের মুখে শ্রাবন্তীর সংসার!

বিনোদন ডেস্ক:
ভাঙনের মুখে ইপসিতা শবনম শ্রাবন্তীর সংসার। একসময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী শ্রাবন্তীকে গত ৭ মে তাঁকে তালাকের নোটিশ পাঠিয়েছেন তাঁর স্বামী মোহাম্মদ খোরশেদ আলম। বগুড়া সদরের কালীতলার শিববাড়ি সড়কে বাবার বাসার ঠিকানায় এই নোটিশ পাঠানো হয় বলে শ্রাবন্তী নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, তালাকের নোটিশ আমার বোড় বোনের নামের রেজিস্ট্রেশন করে পাঠানো হয়েছে বলে আমি জেনেছি। যেহেতু আমার বড় বোন যুক্তরাষ্ট্রে থাকেন তাই এটা আমরা কেউই গ্রহণ করতে পারিনি।

খোরশেদ আলম জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক। পাশাপাশি তিনি এনটিভির মহাব্যবস্থাপক (অনুষ্ঠান) ছিলেন। এছাড়াও চ্যানেল নাইনেও কাজ করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে থাকতেই স্বামীর পাঠানো তালাকের এই নোটিশের খবর পেয়েছেন শ্রাবন্তী। নিজের সংসারের ভাঙন ঠেকাতে গত ২৫ জুন শ্রাবন্তী দেশে ফিরেছেন। শ্রাবন্তী ও খোরশেদ আলমের ঘরে দুই সন্তান রয়েছে তাঁদের বড় মেয়ে রাবিয়াহ আলমের বয়স সাত আর ছোট মেয়ে আরিশা আলমের সাড়ে তিন বছর।

দেশে ফিরে স্বামীর সাথে দেখা করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন বলে জানান শ্রাবন্তী। গতকাল শনিবার রাতে সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, কেন এমন করছ? দাও না আমাদের মাফ করে। এক ঘর দরকার নাই, কিন্তু এক ছাদের নিচে থাকি আমরা। বাচ্চাদের প্রতি একটু দয়া করো।

তিনি বলেন, তুমি তো প্রতিজ্ঞা করেছিলে, কখনো ছেড়ে যাবে না। এখন কেন ছেড়ে গেছ? আমাদের বাচ্চাদের ভাঙা পরিবারে বড় হতে দিয়ো না। আমি তোমার কাছে হাত জোড় করে বলছি, আমাদের বাচ্চাদের মানসিকভাবে ভেঙে দিও না।

শ্রাবন্তী খিলগাঁও থানায় নারী নির্যাতন ও যৌতুকের মামলা করেছেন জানিয়ে বলেন, আমি বাধ্য হয়ে মামলা করেছি। আলম আমাকে না জানিয়ে ডিভোর্স লেটার পাঠিয়েছে। সে আকবার হলেও আমার সাথে আলোচনা করতে পারতো। কিন্তু করেনি তাই বাধ্য হয়ে আমি মামলা করেছি। কিন্তু আমি চাই আমার সংসার টিকে থাকুক।

Comments

comments