রেকর্ড পরিমাণ ট্রান্সফার ফিতে লিভারপুলে আলিসন

স্পোর্টস ডেস্ক:
ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষক আলিসনের জন্য রেকর্ড ৭৫ মিলিয়ন ইউরোর নতুন অফার দিয়েছে ইংলিশ জায়ান্ট লিভারপুল। আর তাতে সায় দিয়েছে ইতালিয়ান ক্লাব রোমা। তাই আলিসনকে অ্যানফিল্ডে আনার তোড়জোড় শুরু করে দিয়েছে ‘অল রেডস’রা।

এর আগে এই গোলরক্ষককে দলে ভেড়াতে লিভারপুলের ৭০ মিলিয়ন ইউরোর অফার ফিরিয়ে দিলেও রেকর্ড গড়া এই অফার ইতালির ক্লাব রোমা’র পক্ষে ফেরানো সম্ভব হয়নি। বুধবার (১৮ জুলাই) লিভারপুল ও রোমা ট্রান্সফার ফি নিয়ে নতুন করে আলোচনায় বসে। সেখানেই তাদের আলোচনা আলোর মুখ দেখে বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ পত্রিকা ইন্ডিপেনডেন্ট।

আলিসনের দিকে নজর দিয়েছিলো চেলসিও, কারণ তাদের গোলরক্ষক থিবাউ কুর্তোয়ার রিয়াল মাদ্রিদ পাড়ি দেওয়া এখন সময়ের ব্যাপার। কিন্তু লিভারপুল তাদের প্রথম পছন্দের গোলরক্ষক আলিসনকে নিয়ে সতর্ক পদক্ষেপ নিয়েছে।

আলিসনের জন্য গোলরক্ষক হিসেবে সবচেয়ে বেশি ট্রান্সফার ফি’র (৭৫ মিলিয়ন ইউরো) প্রস্তাব দিয়েছে তারা। এর আগে এই রেকর্ডে নাম ছিল ইতালির কিংবদন্তি গোলরক্ষক জিয়নলুইজি বুফনের (৫৩ মিলিয়ন ইউরো, ২০০১, জুভেন্টাস)। গত মৌসুমে বেনফিকা থেকে ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দেওয়া এদারসনের জন্য ৪০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করেছিলো ম্যানচেস্টার সিটি।

লিভারপুলের কোচ ইয়র্গেন ক্লপের সঙ্গেও আলোচনা সেরে নিয়েছেন আলিসন। আলোচনা শেষে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালিস্টদের সঙ্গে গাটছাড়া বাঁধার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে যান ব্রাজিলিয়ান তারকা। লিভারপুলে তিনি প্রথম গোলরক্ষক হিসেবে লরিস কারিউসের স্থলাভিষিক্ত হবেন।

২০১৬ সালে ইন্টারন্যাসিওনাল থেকে মাত্র ৭.৫ মিলিয়ন ইউরোর ট্রান্সফার ফি’তে রোমায় যোগ দেন আলিসন। তবে সেখানে প্রথম মৌসুমে ব্যাক-আপ গোলরক্ষক হিসেবে ব্যাঞ্চে বসেই সময় কাটে তার। তবে গত মৌসুমে রোমার প্রথম পছন্দে পরিণত হন তিনি এবং তাদের চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালে তোলার পেছনে বড় অবদান রাখেন। ওই ম্যাচে লিভারপুলের কাছে হেরে বিদায় নেয় তারা। সেই লিভারপুলই এখন তার নতুন ঠিকানা হতে চলেছে।

লিভারপুলের জন্য বছয় কয়েক ধরেই গোলরক্ষকের স্থানটি চিন্তা বিষয় হয়ে উঠেছিলো। কারিউস কিংবা সাইমন মিগ্নোলেট কেউই ক্লপের চাহিদামতো খেলতে পারছিলেন না। সেই চিন্তার সমাধান আলিসন কিনা তা আসন্ন মৌসুমেই বোঝা যাবে। আপাতত রেকর্ড ট্রান্সফার ফি’র বিনিময়ে লিভারপুলে যোগ দেওয়ার অপেক্ষায় আলিসন।

 

সূত্র: স্কাই স্পোর্টস

Comments

comments