নতুন অভিযোগে রোনালদোর সঙ্কট আরও বাড়লো

স্পোর্টস ডেস্ক:

একের পর এক বিপদেই জড়াচ্ছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর নাম। রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়ার পর বিপদ যেন তার পিছুই ছাড়ছে না। জুভেন্টাসের হয়ে প্রথম তিন ম্যাচে গোল পাননি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম ম্যাচ খেলতে গিয়ে দেখলেন লাল কার্ড। এরপর রোনালদোর নামে উঠলো গুরুতর অভিযোগ। ৯ বছর আগে লাস ভেগাসে তিনি নাকি ধর্ষণ করেছিলেন আমেরিকান এক নারীকে। ক্যাথেরিন মায়োরগা নামে ৩৫ বছর বয়সী ওই নারী যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে ইতোমধ্যেই রোনালদোর নামে মামলা ঠুকে দিয়েছেন।

ধর্ষণের অভিযোগের কারণে রোনালদোর সঙ্গে ১০০ মিলিয়ন ইউরোর চুক্তি বাতিল করার চিন্তা শুরু করে দিয়েছে তার সঙ্গে কাজ করা নাইকি। এসবের মধ্যেই রোনালদোর বিরুদ্ধে আরও তিনটি নতুন অভিযোগ। আরও তিনজন নারীও নাকি সিআর সেভেনের নামে ধর্ষণের অভিযোগ তুলেছেন।

রোনালদোর বিরুদ্ধে যে মার্কিন নারী ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন, সেই ক্যাথরিনের আইনজীবী লেসলি স্টোভাল ‘দ্য সান’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ক্রিশ্চিয়ানোর রোনালদোর বিরুদ্ধে একই অভিযোগ এনে আরও তিনজন নারী তার সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

লেসলি স্টোভাল জানিয়েছেন, একজন নারী রোনালদোর বিরুদ্ধে একইরকম অভিযোগ এনেছেন, যেমনটা ক্যাথরিন এনেছিলেন। পার্টির পর হোটেলের ঘরে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছিল বলে তার অভিযোগ। অন্যজনের দাবি, রোনালদোর অস্বাভাবিক আচরণে তিনি আঘাত পেয়েছিলেন। আরেকজন জানিয়েছেন, ক্যাথরিনের মতোই তার সঙ্গে রোনালদোর চুক্তি হয়েছিল, তথ্য গোপন রাখার জন্য। সেটাও ঘটেছিল ২০০৯ সালে।

ক্যাথরিনের আইনজীবী বলছেন, ‘আপাতত এই ধরনের তথ্যের সত্যতা যাচাই করার চেষ্টা করছি। সেটা করতে পারলে আমার মক্কেলের দাবি আরও জোরদার হবে।’ যদিও লেসলি স্টোভাল নতুন তিন অভিযোগকারিনীর নাম-পরিচয় গোপন রেখেছেন।

যদিও ক্যাথরিনের মামলা নতুন করে শুরু হওয়ার পর ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো সব অভিযোগই অস্বীকার করে আসছেন। ৩ অক্টোবর এক টুইটে রোনালদো টুইট করে বলেছিলেন, ‘আমি সব অভিযোগ অস্বীকার করছি। ধর্ষণ একটা অপরাধ। আমি সেটাই বিশ্বাস করি। আমি এ সব থেকে আমার নামকে মুক্ত রাখতে চাই।’

কিন্তু নতুন যে তিনটি অভিযোগ রোনালদোর নামে উঠে গেলো, এবার সেগুলোকে কিভাবে মোকাবেলা করবেন তিনি?

Comments

comments