অপর্যাপ্ত ঘুম মৃত্যুঝুঁকি বাড়ায়

লাইফস্টাইল ডেস্ক:
অনেকেরই রাত জাগার অভ্যাস। শেষরাত পর্যন্ত জেগে তারপর ঘুমাতে যান। কিন্তু সকালের কাজের তাড়ায় আবার সাতটার মধ্যে উঠে পড়েন। কেউ কেউ আবার রাতে সময় মতো বিছানায় গেলেও কিছুতেই ঘুম আসে না। ঘুমের জন্য অপেক্ষায় বিছানায় এপাশ ওপাশ করতে থাকেন। এসব কারণ ডেকে আনতে পারে মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুঁকি!

সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে, যারা দিনে সাত ঘন্টার কম বা তার বেশি সময় ঘুমান তাদের মধ্যে হৃদযন্ত্রের সমস্যা হওয়ার ঝুঁকি অনেক বেশি। মার্কিন ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া বিম্ববিদ্যালয়ের এই গবেষণা রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, যারা পাঁচ ঘন্টার কম ঘুমান, তাদের মধ্যে স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাকসহ নানা শারীরিক সমস্যার ঝুঁকি দ্বিগুন। শুধু তাই নয়, ৬০ বছরের বেশি বয়স্কদের অনিয়মিত ঘুমের ফলে নানা প্রাণঘাতী শারীরিক সমস্যার ঝুঁকি বেড়ে যায়।

গবেষণায় ৩০ হাজার জন বয়স্ক মানুষের বয়স, উচ্চতা, খাদ্যাভ্যাস-সহ নানা তথ্য নেওয়া হয়। এরপর দেখা হয়, সবকিছু ঠিক থাকলেও শুধু ঘুমের অভাবে শরীরে কোনো রকম সমস্যা দেখা দেয় কি না। গবেষণায় উঠে আসে, কম ঘুম মানুষের শরীরের খাদ্য হজমসহ অন্যান্য ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। ইনসুলিন এবং রক্তচাপ গড়বড় হতে শুরু করে। ফলে ধীরে ধীরে মানুষের ভেতরে তৈরি হয় নানা সমস্যা।

আমেরিকান একাডেমি অব স্লিপ মেডিসিনের প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষের উচিত প্রতি রাতে অন্তত ছয় থেকে সাত ঘন্টা ঘুমানো। তবে এক্ষেত্রে যদি কারো কোনোভাবেই সাত ঘন্টা ঘুম না হয় তাহলে ওই সময়টায় তার শুয়ে থেকে বিশ্রাম নেওয়া উচিত। পরীক্ষায় দেখা গেছে, সাত ঘন্টা না ঘুমাতে পারলে, সেই পরিমাণ সময় শুয়ে থাকাটাও মানুষের শরীরে যথেষ্ট পরিবর্তন আনে।

সূত্র: জিনিউজ

Comments

comments