পরীক্ষায় বসতে না পাওয়া ভর্তিচ্ছুদের টাকা ফেরত দেবে বাকৃবি প্রশাসন

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
অনেক আলোচনা সমালোচনার পর ২০১৮-১৯ স্নাতক শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ না পাওয়া ভর্তিচ্ছুদের টাকা ফেরত দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি) প্রশাসন। ভর্তি কমিটির সদস্য সচিব ও বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) মো. ছাইফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ভর্তি কমিটির সভায় যারা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারছে না তাদেরকে ৫০০ টাকা ফিরিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে ভর্তি পরীক্ষা কমিটির আহ্বায়ক ও ডিন কাউন্সিলের আহ্বায়ক প্রফেসর ড. গিয়াস উদ্দিন আহমদ বলেন, যে সকল পরীক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাচ্ছে না তাদেরকে ৫০০ টাকা ফিরিয়ে দেয়া হবে। এজন্য পরীক্ষার্থীদের আবেদনে দেয়া ব্যক্তিগত মোবাইল নাম্বারে এসএমএসের মাধ্যমে একটা রকেট নাম্বার চাওয়া হবে। পরবর্তীতে ওই নাম্বারে ৫০০ টাকা ফেরত দেবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। অতি শিগগিরই এই টাকা ফেরত দেয়া হবে। সামনে ১০ নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের পরিচালক প্রফেসর ড. মো. আবদুল আওয়াল জানান, প্রায় ৫ হাজার ৭৮২ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারছে না।

উল্লেখ্য, বাকৃবিতে ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় অনলাইনে প্রায় ২০ হাজার শিক্ষার্থী আবেদন করে। প্রতি বছরের ন্যায় মেধার ভিত্তিতে আসন সংখ্যার দশগুন মোট ১২ হাজার ৩০০ জন আবেদনকারীকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ দেয়া হয়। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের আবেদন ফি ছিল ৭০০ টাকা।

ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে না এমন শিক্ষার্থীদের কাছ থেকেও আবেদন ফি নেয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠন, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকবৃন্দ অনেকদিন থেকেই তীব্র নিন্দা ও সমালোচনা করে আসছিল। আন্দোলনকারী বিভিন্ন সংগঠন, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা টাকা ফেরত দেয়ার এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে।

Comments

comments