বিক্ষোভ বন্ধে তেলের দাম বাড়ানো বন্ধ করল ফ্রান্স

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

জানুয়ারির ১ তারিখ থেকে তেলের ওপর কর বাড়ানোর সিদ্ধান্ত বাতিল করেছে ফ্রান্সের সরকার। মঙ্গলবার ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী এদুয়ার্দ ফিলিপ এ সম্পর্কিত একটি ঘোষণা দিবেন বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

তেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়া বিক্ষোভ বন্ধে সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানায় সংশ্লিষ্ট সূত্র।

পরিবেশ দূষণের খরচ মেটাতে তেলের ওপর ট্যাক্স বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় ফরাসি সরকার। এর প্রতিবাদে গত মাসে শুরু হয় এই বিক্ষোভ। সম্প্রতি এটি সহিংস রুপ নিলে প্যারিসে দাঙ্গা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

তেলের দাম বাড়ানোর প্রতিবাদে আন্দোলন শুরু হলেও এটি ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁর বিরুদ্ধে বিদ্রোহের রূপান্তরিত হয়। তিনি স্বল্প আয়ের মানুষদের জন্য ক্ষতিকর বিভিন্ন নীতিমালা গ্রহণ করছেন বলে অভিযোগ ওঠে।

তেলের মূল্যবৃদ্ধি ঠেকানো ছাড়াও আরও দাবি ছিল আন্দোলনকারীদের। নূন্যতম মজুরি বৃদ্ধির দাবি জানাচ্ছিল তারা। সেখানে উচ্চ আয়ের মানুষদের সম্পদের ওপর কর মওকুফ করা হয়েছিল গত বছর, সেটি ফিরিয়ে আনাও ছিল ‘ইয়েলো ভেস্ট’ আন্দোলনের নেতাদের।

ফ্রান্সের সব যানবাহনে যে হলুদ জ্যাকেট রাখা থাকে আন্দোলনকারীরা সেগুলো পরে রাস্তায় নামায় একে ‘ইয়েলো ভেস্ট মুভমেন্ট’ নামে অভিহিত করা হয়।

ম্যাক্রোঁ সোমবার গভীর রাতে তেলের দাম বৃদ্ধি করার সিদ্ধান্ত নেয়। ফ্রান্সের সব রাজনৈতিক দলের নেতাদের সঙ্গে আলোচনার পর তিনি এই সিদ্ধান্ত নেন বলে জানায় সংশ্লিষ্ট সূত্র।

শনিবার প্যারিসের অনেক রাস্তা যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত হলে ক্রুদ্ধ জনতাকে শান্ত করার চাপ আসে প্রেসিডেন্টের ওপর। ওইদিন বহু গাড়িতে আগুন দেয়া হয় এবং দোকানপাট ভাঙচুর করে লুটপাট চালানো হয়।

মঙ্গলবার আইনপ্রণেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী ফিলিপ তেলের ট্যাক্স বাতিলের কথা ঘোষণা করবেন। তবে নিরাপত্তাজনিত কারণে তিনি ‘ইয়েলো ভেস্ট’ আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন না।

Comments

comments