মোদির সমালোচনা করায় কারাদণ্ড সাংবাদিকের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ভারতে ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সমালোচনা করায় কিশোরচন্দ্র ওয়াংখেম নামের এক সাংবাদিককে এক বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। সরকারের সমালোচনা করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করায় জাতীয় নিরাপত্তা আইনে তাকে এই কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদেন জানানো হয়েছে, এই আইনের সর্বোচ্চ শাস্তি হলো এক বছরের কারাদণ্ড। গত ২৬ নভেম্বর কিশোরচন্দ্র ওয়াংখেম নামের ওই সাংবাদিককে আটক করে পুলিশ।

ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং মণিপুর রাজ্য সরকারের মুখ্যমন্ত্রী বীরেন সিংয়ের সমালোচনা করে ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট করার পর তাকে আটক করা হয়। তার মুক্তির দাবিতে বিভিন্ন সংগঠন সোচ্চার হলেও তিনি ছাড়া পাননি।

ভারতের মণিপুর রাজ্যের একটি প্রভাবশালী দৈনিকে কাজ করতেন কিশোরচন্দ্র ওয়াংখেম। ওই দৈনিক সরকারের পক্ষে কাজ করায় আটক হওয়ার আগেই সেখানকার চাকরি ছেড়ে দেন তিনি। ওয়াংথামের গ্রেফতারের ঘটনাকে দুর্ভাগ্যজনক বলে মন্তব্য করে ভারতের সাংবাদিক সংস্থাগুলো।

এই রায়ের প্রতিবাদে দিল্লিতে আন্দোলনে নেমেছেন অনেক মানুষ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ সর্বত্র এ ঘটনার নিন্দা জানাচ্ছে সর্বস্তরের মানুষ। তারা এই ঘটনাকে দেশে গণমাধ্যমের স্বাধীনতার পরিপন্থি বলে অভিহিত করেছেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে এক ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘বিশ্বের সবচেয়ে বড় গণতন্ত্রের দেশ থেকে আপনাকে জানাচ্ছি সকালের শুভেচ্ছা। এ হলো এমন গণতন্ত্রের দেশ যেখানে প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করে মন্তব্য করায় একজন সাংবাদিককে এক বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়।’

Comments

comments