হ্যান্ড ওয়াশেই রয়েছে ক্ষতিকর বিষ!

নিউজ ডেস্ক:

কোনো কিছু খাবার খাওয়ার আগে হাত ধোয়া জরুরি। তা না করলে হাতের ময়লা, জীবানু খাবারের সঙ্গে পেটে চলে গিয়ে স্বাস্থ্যের মারাত্মক ক্ষতি করতে পারে। তাই চিকিত্সকরা সব সময় সাবান বা হ্যান্ড ওয়াশ দিয়ে ভালো করে হাত ধুয়ে খাবার খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। ইদানীং লিকুইড হ্যান্ড ওয়াশের ব্যবহার অনেকটাই বেড়েছে। স্বাস্থ্য সচেতন অনেকেই এখন লিকুইড হ্যান্ড ওয়াশে হাত ধুয়ে তবেই খেতে বসেন। কিন্তু আপনার ব্যবহার করা হ্যান্ড ওয়াশটি আদৌ সুরক্ষিত তো?

বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল যে সব লিকুইড হ্যান্ড ওয়াশ বাজারে উপলব্ধ, তাতে কী কী উপাদান রয়েছে তা আমরা প্রায় কেউই দেখি না। বিশেষজ্ঞদের দাবি, বেশির ভাগ বাজার চলতি লিকুইড হ্যান্ড ওয়াশে ট্রাইক্লোসান ও ট্রাইক্লোকার্বন নামের দু’টি রাসায়নিক উপাদন খুব ব্যবহার করা হয় যা শরীরের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকর।

তাদের মতে, এই দু’টি রাসায়নিক উপাদান ব্যাক্টেরিয়া ধ্বংস করে ঠিকই, কিন্তু এগুলো স্বাস্থ্যের পক্ষে মারাত্মক ক্ষতিকর। এই দুই রাসায়নিকের প্রভাবে প্রজনন ক্ষমতায় ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, মস্তিষ্কেও হতে পারে নানা সমস্যা।

মার্কিন বিশেষজ্ঞদের দাবি, এই সব রাসায়নিক মিশ্রিত হ্যান্ড ওয়াশের অতিরিক্ত ব্যবহারের ফলে জন্ম নিতে পারে ‘ড্রাগ রেজিসটেন্ট জার্ম’ যেগুলোকে কোনো ওষুধের দ্বারাই নিয়ন্ত্রণে আনা বা মেরে ফেলা সম্ভব নয়।

শতাধিক মার্কিন লিকুইড হ্যান্ড ওয়াশ প্রস্তুতকারী সংস্থার সহশ্রাধিক পণ্যে এই সব ক্ষতিকর রাসায়নিকের উপস্থিতির প্রমাণ মিলেছে। মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের দাবি, শুধু লিকুইড হ্যান্ড ওয়াশেই নয়, একাধিক জনপ্রিয় টুথপেস্ট, সাবান, মাউথ ওয়াশ বা ডিটারজেন্টেও এই সব ক্ষতিকর রাসায়নিকের উপস্থিতির প্রমাণ মিলেছে। তাই এই সব পণ্য কেনার সময় ভালো করে দেখে নিন। আর এ ক্ষেত্রে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ, হাত জীবানু মুক্ত করতে হলে অ্যালকোহল দিয়ে তৈরি পণ্য ব্যবহার করা উচিত্।

সূত্র: জিএন

Comments

comments