৩৩ লাখ টাকার এই ইলেকট্রিক মোটরসাইকেলে আছে কী?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসের কনসিউমার ইলেকট্রনিক্স পণ্যের শোয়ে নতুন একটি ইলেকট্রিক মোটরসাইকেল প্রদর্শিত হয়েছে। সাইকেল ও মোটরসাইকেলের মতো দেখতে এই বাহনটিতে প্রথমবারের মতো কার্বোন ফাইবার ফ্রেম ব্যবহার করা হয়েছে। বাংলাদেশি টাকায় যার দাম ৩৩ লাখেরও বেশি।

সর্বাধুনিক প্রযুক্তির নতুন এই ইলেকট্রিক মোটরসাইকেলের এমন বিশাল মূল্যের পেছনে রয়েছে প্রযুক্তিগত নানান সুবিধা। আর এই মোটরসাইকেলটি তৈরি করেছে নোভাস নামের জার্মান একটি কোম্পানি। লাস ভেগাসের ওই অনুষ্ঠানে মোটরসাইকেলটি তৈরীর একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান।

তবে অবাক করার মতো বিষয় হল সর্বাধুনিক প্রযুক্তির নতুন এই ইলেকট্রিক মোটরসাইকেলটির ওজন মাত্র ৩৮ কিলোগ্রাম। যার ফ্রেমের ভেতরে বেশিরভাগ যন্ত্রাংশ লুকানো আছে। আর একবার চার্জ দিলেই একটানা ৯৬ কিলোমিটার রাস্তা চলতে পারবে এই মোটরসাইকেল। ঘণ্টায় যার সর্বোচ্চ গতি হবে ৯৬ দশমিক ৫ কিলোমিটার।

মোটরসাইকেলটিতে রয়েছে ১৪ দশমিক ১৪ কিলোওয়াটের একটি লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি। এই ব্যাটারির মাধ্যমে ইঞ্জিন থেকে সর্বোচ্চ শক্তি পাওয়া যাবে। তাছাড়া এই মোটরসাইকেলে থাকছে সম্পূর্ণ নতুন প্রযুক্তির সাসপেনশান। তবে এই সাসপেনশান কতটা নড়াচড়া করতে পারে তা জানায়নি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান।

মোটরসাইকেলটিতে ব্রেকিং এর জন্য এই থাকছে ডুয়াল হাইড্রোলিক ফ্লোটিং ক্যালিপার ডিস্ক ব্রেক। এই মোটরসাইকেলে কোন ইন্সট্রুমেন্ট ক্লাস্টার থাকছে না। পরিবর্তে থাকছে একটি স্মার্টফোন। মোটরসাইকেলের সব তথ্য দেখানোর সঙ্গে ডিজিটাল কি হিসেবেও কাজ করবে এই স্মার্টফোন।

Comments

comments