ন্যু ক্যাম্পে রিয়ালের বিপক্ষে বার্সেলোনার ড্র

স্পোর্টস ডেস্ক:

মৌসুমের দ্বিতীয় এল ক্লাসিকো, বছরের প্রথম। ন্যু ক্যাম্পে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনার ম্যাচটি ঘিরে ছিল টানটান উত্তেজনা। সেই সাথে ছিল শঙ্কাও। লিওনেল মেসি খেলতে পারবেন তো? শুরু থেকে না হলেও, মেসি নেমেছেন মাঠে। কিন্তু দলকে জয় এনে দিতে পারলেন না আর্জেন্টাইন এই সুপারস্টার।

বুধবার বার্সেলোনার ঘরের মাঠে কোপা ডেল রের সেমি ফাইনালের প্রথম লেগে ১-১ সমতায় শেষ হয়েছে ম্যাচটি। রিয়ালের হয়ে গোল করেছেন লুকাস ভাসকেজ। আর বার্সাকে সমতায় ফেরান ম্যালকম।

এদিন ম্যাচের ৬৩ মিনিটে ফিলিপে কুতিনহোর বদলি হিসেবে নামেন মেসি। কিন্তু তার আগেই ম্যাচের ফল নির্ধারনী গোল দু’টি হয়ে যায়। মাঠে নেমে সেই ফলে কোন পরিবর্তন আনতে পারেননি পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলার।

এদিন প্রতিপক্ষের মাঠে শুরুতেই এগিয়ে যায় রিয়াল। ভিনিসিয়ুসের বাড়ানো ক্রস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ভাসকেজকে বাড়ান কমির বেনজেমা। আর সেই বলটিকে মাপা শটে গোলে পরিণত করতে কোন ভুল করেননি এই স্প্যানিশ উইঙ্গার। ম্যাচের তখন মাত্র ষষ্ঠ মিনিট।

এদিকে শুরুতেই গোল হজম করে নড়চড়ে বসে বার্সেলোনা। বেশ কিছুক্ষণ অতিথিদের রক্ষণে ত্রাস সৃষ্টি করে রাখে স্বাগতিকরা। তবে রিয়ালের গোলমুখ খুলতে ব্যর্থ হয়।

পাল্টা আক্রমণে কম যায়নি রিয়ালও। ভিনিসিয়ুস জুনিয়র-টনি ক্রুসরাও বার্সার রক্ষণে হানা দেয় বেশ কয়েকবার। তবে প্রথমার্ধে কোন পক্ষই আর গোল পায়নি।

দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে খেলায় কিছুটা রক্ষণাত্মক হয়ে যায় রিয়াল। আর এই সুযোগটাই কাজে লাগায় বার্সা। রিয়ালের রক্ষণে চাপ বাড়িয়ে আদায় করে নেয় সমতা সূচক গোলটি।

ম্যাচর ৫৭ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান মিড ফিল্ডার ম্যালকমের শটে গোল শোধ করে বার্সা। লুইস সুয়ারেজের জোরালো শট পোস্টে বাধা পেয়ে ব্যর্থ হলে তা ফাঁকায় পেয়ে যান ম্যালকম।

সমতায় ফিরে আরো আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে বার্সেলোনা। কুতিনহোকে তুলে নামানো হয় মেসিকে। তাতে খেলায় গতি আসলেও আর কোন গোল তুলে নিতে ব্যর্থ হয় বার্সেলোনা। রিয়ালও দ্বিতীয়বার স্বাগতিকদের জাল খুঁজে পায়নি।

Comments

comments