ফেরদৌসকে ভারত ছাড়ার নির্দেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

বাংলাদেশের চিত্রনায়ক ফেরদৌস আহমেদের ভিসা বাতিল করে দেশে ফেরার নির্দেশ দিয়েছে ভারত। পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেসের নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেওয়ায় তাকে এ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার হিন্দুস্তান টাইমস ও এনডিটিভি জানিয়েছে, ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে- ‘ইমিগ্রেশন ব্যুরো থেকে বাংলাদেশি নাগরিক ফেরদৌস আহমেদের ভিসার শর্ত লংঘনের খবরের ভিত্তিতে তার বিজনেস ভিসা বাতিল করা হয়েছে এবং তাকে ভারত ছাড়ার নোটিশ দেওয়া হয়েছে।’

এ বিষয়ে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেছেন, ফেরদৌস আহমেদের ভিসা–সংক্রান্ত আচরণ লঙ্ঘনের প্রতিবেদন পাওয়ার পরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাঁর ভিসা বাতিল করেছে। সেই সঙ্গে তাঁকে কালো তালিকাভুক্তও করা হয়েছে।

গত রোববার পশ্চিমবঙ্গের উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জে লোকসভায় তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী কানাইয়ালাল আগরওয়ালের নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেন দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা ফেরদৌস। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন ভারতীয় বাংলা সিনেমার দুই তারকা অঙ্কুশ হাজরা ও পায়েল।

ওই আসনে বিজেপির প্রার্থী দেবশ্রী চৌধুরী, কংগ্রেসের প্রার্থী দীপা দাসমুন্সি আর সিপিএমের প্রার্থী বর্তমান বিদায়ী সাংসদ মোহাম্মদ সেলিম।

এদিকে এই খবর প্রকাশের পর তীব্র প্রতিবাদ করে বিজেপি। ক্ষুব্ধ বিজেপি নেতারা তাকে গ্রেপ্তারের দাবি জানান। বিষয়টি নিয়ে নির্বাচন কমিশনেও অভিযোগ করেন তারা।

এরপর ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আচরণবিধি লঙ্ঘন হয়েছে কি না, সে ব্যাপারে প্রতিবেদন চায়। ওই প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ভিসা বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয় দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

Comments

comments