অধ্যাপক মাসুদকে হত্যাচেষ্ঠাঃ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচি

নিউজ ডেস্ক:

চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক ও বর্তমানে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের (ইউএসটিসি) ইংরেজি বিভাগের উপদেষ্টা প্রবীণ অধ্যাপক মাসুদ চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক ও বর্তমানে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের (ইউএসটিসি) ইংরেজি বিভাগের উপদেষ্টা প্রবীণ অধ্যাপক মাসুদ মাহমুদকে কেরোসিন ঢেলে প্রকাশ্যে আগুনে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার অপরাধে জড়িতদের দ্রুত বিচারের মুখোমুখি ও তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের দাবিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি আজ মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেন।

মানববন্ধন অনুষ্ঠানে বক্তারা অধ্যাপক মাসুদ এর সাথে জঘন্য ও বর্বরতামূলক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও  হত্যাচেষ্টাকারীদের দ্রুত বিচারের আওতায় আনার জন্য সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান। এটি কোন দূর্ঘটণা নয় বরং একটি পরিকল্পিত হত্যাচেষ্ঠা বলেও জানান বক্তরা। এ ঘটনার সুষ্ট তদন্ত ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হলে এসব ঝটনা দিনদিন বেগে চলবে এবং জাতি সংকটের মধ্যে পড়বে বলে অশংকা প্রকাশ করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ২ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয় অফিস থেকে টেনে বের করে রাস্তায় নিয়ে গায়ে কেরোসিন ঢেলে প্রবীণ শিক্ষক অধ্যাপক ড. মাসুদ মাহমুদকে লাঞ্ছিত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী। ওই দিন রাতেই ইউএসটিসির ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার দিলীপ কুমার বড়ুয়া বাদী হয়ে খুলশী থানায় ‘কেরোসিন ঢেলে শিক্ষককে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে’ মামলা করেন। মামলায় শুধু মাহমুদুলকে আসামি করা হয়। পরে এ ঘটনায় ২১ শিক্ষার্থী জড়িত বলে অভিযোগ করা হলেও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ চারজনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিয়েছে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতার পর অবসরে গিয়ে অধ্যাপক মাসুদ মাহমুদ প্রায় তিন বছর আগে ইউএসটিসিতে উপদেষ্টা অধ্যাপক হিসেবে ইংরেজি বিভাগে যোগ দেন। গায়ে কেরোসিন ঢেলে দেওয়ার ঘটনার পর ইউএসটিসি কর্তৃপক্ষের ভূমিকায় ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেছেন, তিনি আর ওই বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতায় যোগ দিচ্ছেন না।

Comments

comments