কাশ্মীরের ভাঙনে উদ্বিগ্ন জাতিসংঘ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

কাশ্মীর ইস্যুতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। ওই অঞ্চলে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানানো হয়েছে। অপরদিকে, কাশ্মীর ইস্যুটি গভীরভাবে নজরে রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রও। সোমবার হঠাৎ করেই জম্মু-কাশ্মীরের ওপর থেকে ভারতের বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয়ার ঘটনায় বিশ্বজুড়ে বিতর্ক শুরু হয়েছে।

কাশ্মীর ইস্যু ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় হিসেবে উল্লেখ করলেও ওই অঞ্চলে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতর।

জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেসও ভারত ও পাকিস্তানকে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন। জাতিসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক বলেন, কাশ্মীরে উতপ্ত পরিস্থিতিতে আমরা চিন্তিত। কাশ্মীরে ভারতের নিয়ন্ত্রণ সম্পর্কে আমরা সতর্ক আছি।

অন্যদিকে মঙ্গলবার কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ায় ভারত সরকারের সিদ্ধান্ত নিয়ে পাক সংসদে যৌথ অধিবেশন ডাকা হয়েছে। সোমবার রাতে রাজ্যসভায় পাস হয়েছে জম্মু-কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল। ওই বিলের পক্ষে ভোট পড়েছে ১২৫টি এবং বিপক্ষে ৬১টি।

বিজেপি সরকারের গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তে বদলে গেছে জম্মু ও কাশ্মীরের মর্যাদা। ৬৯ বছর পর জম্মু-কাশ্মীরে বাতিল করা হলো ৩৭০ এবং ৩৫-এ ধারা। ফলে বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা হারালো জম্মু ও কাশ্মীর।

একই সঙ্গে কাশ্মীর থেকে ভেঙে আলাদা করে দেওয়া হলো লাদাখকে। দু’টি আলাদা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হচ্ছে জম্মু- কাশ্মীর ও লাদাখ। এই দুই জায়গাতেই থাকবেন লেফটেন্যান্ট গভর্নর।

এদিকে, সোমবার কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা ভারত কেড়ে নেয়ার পর মুসলিম বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নেতাদের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তার সঙ্গে টেলিফোনে আলাপকালে কাশ্মীরিদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোয়ান এবং মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।

Comments

comments