বাহামাসে ডোরিয়ানের আঘাতে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

হারিকেন ডোরিয়ানের আঘাতে বাহামাসে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে ২০ এ দাঁড়িয়েছে। এই সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন দেশটির কর্মকর্তারা।

প্রধানমন্ত্রী হুবার্ট মিন্নিস একে দ্বীপপুঞ্জের জন্য ‘ঐতিহাসিক বিপর্যয়’ বলে আখ্যা দিয়েছেন।

বুধবার রাতে সংবাদ সম্মেলনে ডোরিয়ানের আঘাতে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা আবাকো আইল্যান্ডসে লুটপাটের খবরে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

হারিকেনের আঘাতে নিহতের সংখ্যা নিশ্চিত করে মিন্নিস বলেছেন, ‘আমরা আশঙ্কা করছি এই সংখ্যা আরো বাড়বে। আমরা আপনাদের পরিবার ও প্রিয়জনের মৃত্যুতে প্রার্থণা করার অনুরোধ জানাচ্ছি।’

ক্যাটাগরি পাঁচ হারিকেন রূপে ১ সেপ্টেম্বর ঘণ্টায় একটানা সর্বোচ্চ ২৯৮ কিলোমিটার বাতাসের বেগ নিয়ে বাহামাসে আঘাত হানে ডোরিয়ান। দুদিন ধরে এটি বাহামাসের উত্তরাংশের আবাকো ও গ্রান্ড বাহামা আইল্যান্ডে তাণ্ডব চালায়।

আবাকো আইল্যান্ডসের বিস্তৃত অঞ্চলে এখনো উদ্ধারকর্মীরা পৌঁছতে সক্ষম হন নি। সেই সুবাদে হারিকেনের আঘাতে ঠিক কতটুকু ক্ষতি হয়েছে তার পূর্ণাঙ্গ চিত্র এখনো পাওয়া যায় নি।

জাতিসংঘের মানবিক সংশ্লিষ্ট ও জরুরি ত্রাণ সমন্বয় বিষয়ক আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল মার্ক লোকক জানিয়েছেন, তার সংস্থার হিসেবে বাহামাসের উত্তরাঞ্চলের প্রায় ৭০ হাজার লোকের ত্রাণ প্রয়োজন।

উদ্ধারকর্মীরা জানিয়েছেন, ধ্বংসের মাত্রার কারণে এবং উত্তরের দ্বীপগুলো প্রত্যন্ত হওয়ায় উদ্ধার তৎপরতা চালানো চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। যেসব জায়গায় যাওয়া যাচ্ছে সেখানে পানির ব্যবস্থা কাজ না করায় কর্মীরা আকাকোসে স্থায়ী উদ্ধার ক্যাম্প স্থাপন করতে পারছে না।

Comments

comments