বাকৃবিতে কমিউনিটি প্রজেক্ট-২০১৯’র সার্টিফিকেট প্রদান

বাকৃবি প্রতিনিধি:

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) ‘কমিউনিটি প্রজেক্ট-২০১৯’র সার্টিফিকেট প্রদান অনুষ্ঠিত হয়েছে। নেদারল্যান্ডসের ইউনিভার্সিটি অব টুয়েন্টি এবং বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে শনিবার (০৭ সেপ্টেম্বের) দুপুর ১২ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারডিসিপ্লিনারি ইনস্টিটিউট ফর ফুড সিকিউরিটির (আইআইএফএস) সম্মেলন কক্ষে ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

কমিউিনিটি প্রজেক্টে বাকৃবির বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ৫টি আলাদাভাবে দল কাজ করেন। দলগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোর ডাইনিং বালক, নৈশ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশ্ববর্তী এলাকার সবজিচাষী, সংলগ্ন হোটেল কর্মচারি ও বেকার যুবকদের উন্নয়নে কাজ করেছেন।

সার্টিফিকেট প্রদান অনুষ্ঠানে ফার্মাকোলজি বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. মাহমুদুল হাসান শিকদারের সভাপতিত্বে ও কৌলিতত্ত্ব ও উদ্ভিদ প্রজনন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আলেয়া ফেরদৌসীর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নেদারল্যান্ডসের ইউনিভার্সিটি অব টুয়েন্টি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ভিন মোরার এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মো. আজহারুল ইসলাম। এসময় বাকৃবি উপাচার্য ওই প্রজেক্টে কর্মরত ৫টি দলের সদস্যদের হাতে সার্টিফিকেট তুলে দেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাকৃবির উপাচার্য বলেন, দেশের সর্বক্ষেত্রে টেকসই উন্নয়নের জন্য প্রতিটি পাবলিক এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে একাডেমিক কোর্সের সাথে কর্মক্ষেত্রে উন্নয়ন ভিত্তিক আধুনিক কোর্স কারিকুলাম পরিচালনা করা খুবই প্রয়োজনীয়। শিক্ষা ব্যবস্থায় আত্নসচেতনতা, ব্যাবসায়িক চিন্তাধারনা ও প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব তৈরী করা এখন সময়ের দাবি। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন এবং দেশের শিক্ষা মন্ত্রনালয় থেকে উচ্চশিক্ষার সাথে মাঠ পর্যায়ের বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রির সাথে সমন্বয় সাধন করে দক্ষ গ্রাজুয়েট গড়ে তুলতে হবে। সমাজের প্রতি স্তরের মানুষের সাথে সমন্বয় সাধন করে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করলে দেশ ও জাতির উন্নতিতে সবাই প্রত্যক্ষভাবে অংশগ্রহণ করতে পারবে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে এ ধরনের কাজের সূূচনা হয়েছে বলে আমি খুবই আশাবাদী।

Comments

comments