বুয়েট ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের কক্ষসহ ৩ কক্ষ সিলগালা

নিজস্ব প্রতিবেদক:
বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) সিট দখলদারিত্ব উচ্ছেদ ও ছাত্র সংগঠনগুলোর অফিস সিলগালা করার নির্দেশ জারির পর এবার বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কক্ষসহ তিনটি কক্ষ সিলগালা করে দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

আজ (১২ অক্টোবর) দুপুরে বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক মিজানুর রহমানের তত্ত্বাবধানে দুটি আবাসিক হলের তিনটি কক্ষ সিলগালা করে দেওয়া হয়।

বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি খন্দকার জামিউস সানি দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, ছাত্রত্ব শেষ হয়ে যাওয়ার পরও অবৈধভাবে তিনি আহসান উল্লাহ হলের ৩২১ নম্বর কক্ষে এবং সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল শেরে বাংলা হলের ৩০১২ নম্বর কক্ষে থেকে আসছিলেন। এ কারণে তাদের দুজনের কক্ষ সিলগালা করে দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

এছাড়াও, ছাত্রলীগের অফিস কক্ষ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসায় আহসান উল্লাহ হলের ১২১ নম্বর কক্ষটিকেও সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এর আগে, গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. মো. সাইদুর রহমানের স্বাক্ষরিত নির্দেশনায় বলা হয়- অবৈধভাবে যারা আবাসিক হলের সিট দখল করে আছে, তাদেরকে অতিসত্বর হলের সিট খালি করা, সাংগঠনিক ছাত্র সংগঠনগুলোর অফিস কক্ষ বন্ধ করে তা সিলগালা করার জন্য ছাত্রকল্যাণ পরিচালক ব্যবস্থা নিবেন। আগামীকাল (১২ অক্টোবর) উল্লিখিত কাজগুলো শুরু করা হবে।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়- কোনো শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে র‌্যাগিং বা ছাত্র নির্যাতনের অভিযোগ আসলে তা ডিসিপ্লিনারী কমিটির মাধ্যমে দ্রুত বিচার করে সর্বোচ্চ শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

Comments

comments