বিশ্বের শীর্ষ ধনীর তালিকায় ফের এক নম্বরে বিল গেটস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
নাটকীয় উত্থান-পতন ঘটে গেলো গত বৃহস্পতিবার আমাজনের শেয়ার পড়তেই। চরম ধাক্কা খেলেন আমাজানের ও ওয়াশিংটন পোস্টের মালিক জেফ্র্রি পি বেজোস বা জেফ বেজোস। বিশ্বের ধনীতমের স্থান হারান তিনি। অন্যদিকে এক ঝটকায় বিশ্বের সবচেয়ে ধনীর তালিকায় এক নম্বর স্থান দখল করে নিলেন মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। গতকাল শুক্রবার হাফিংটন পোস্ট এ তথ্য প্রকাশ করে।

২০১৮ সালেই বিশ্বের ধনীতমের তালিকা থেকে বিল গেটসকে সরিয়ে নিজের জায়গা পাকা করে নিয়েছিলেন জেফ্রি পি বেজোস। তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ দাড়িয়েছিল ১৬ হাজার কোটি ডলার। বৃহস্পতিবার বাজার বন্ধ হওয়ার আগে আমাজনের শেয়ার দর ৭ শতাংশ পড়ে যাওয়ায় ফের নিজের জায়গা ফিরে পান গেটস।

আমাজন ল্যাকলাস্টার কিউ-৩ রেজাল্টে দেখা গেছে প্রায় ৭০০ কোটি ডলার স্টক হারিয়েছেন বেজোস। বর্তমানে তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ ১০ হাজার ৩৯০ কোটি ডলার। যেখানে বিল গেটসের সম্পত্তি ১০ হাজার ৫৭০ কোটি ডলার। ১৯৯৪ সালে অনলাইন-রিটেল সংস্থা আমাজন তৈরি করেছিলেন জেফ বেজোস। ১৯৯৮ সালে ফোর্বস-এর বিচারে আমেরিকার প্রথম ৪০০ জন ধনীর তালিকায় উঠে আসে তাঁর নাম।

এর পরে বিশ্ব জুড়ে ক্রমশ জনপ্রিয়তার শিখরে ওঠে আমাজন। ২০১৭ সালে ফোর্বস-এর প্রকাশিত তালিকায় বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিদের মধ্যে তৃতীয় স্থানে উঠে আসেন জেফ। তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ দাড়ায় ১৩৭ বিলিয়ন ডলারেও বেশি। চলতি বছরে গোটা বিশ্বকে চমকে দিয়ে ২৫ বছরের সঙ্গী ম্যাকেঞ্জির সঙ্গে নিজের বিচ্ছেদের কথা জানিয়েছিলেন বেজোস। শোনা গিয়েছিল বিচ্ছেদের পর খোরপোশ বাবদ স্ত্রীকে ৪.২ লক্ষ কোটি টাকারও বেশি দিতে হবে তাঁকে। খোরপোশ হিসেবে এই পরিমাণ টাকা দেওয়ার নজির এখনও পাওয়া যায়নি পৃথিবীর ইতিহাসে।

১৯৯৫ সাল থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত অবশ্য বিশ্বে ধনীদের তালিকার এক নম্বরে ছিলেন গেটসই। ২০০৮-এ ছিটকে গেলেও ২০০৯-এ ফের শীর্ষস্থানে ফিরে আসেন তিনি। মোট সম্পত্তির পরিমাণে আমাজন সিইও কিছুটা পিছিয়ে পড়লেও ফের বিশ্বের সবচেয়ে ধনীর তকমা ফিরে এলো বিল গেটস-এর কাছেই।

 

সূত্র: এনডিটিভি

Comments

comments