বাকৃবিতে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) স্নাতক ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষের (লেভেল-১, সেমিস্টার-১) ভর্তিকৃত নবীন শিক্ষার্থীদের কেন্দ্রীয় ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিন মিলনায়তনে এ ওরিয়েন্টেশন অনুষ্ঠিত হয়।

এ অনুষ্ঠানে ছাত্র বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. ছোলায়মান আলী ফকিরের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী (এম.পি), প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসেবে বাকৃবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. লুৎফুল হাসান, বিশেষ অতিথি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. জসিমউদ্দিন খান এবং রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব সুভাষ সিংহ রায় প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, ‘উচ্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা জনগণের টাকায় শিক্ষার্জন করে। এ শিক্ষা দেশের কল্যাণে কাজে লাগানোই বর্তমান সরকারের লক্ষ্য। এবার ৫০ শতাংশ এর চেয়েও বেশি ছাত্রী ভর্তি হওয়া প্রমাণ করে নারী শিক্ষার অগ্রগতিতে সরকারের আন্তরিকতা ও সাফল্য।’

তিনি আরও বলেন, ‘মানুষের প্রাথমিক চাহিদা খাদ্যের অভাব পূরণে বাকৃবির অবদান সবচেয়ে বেশি। কৃষি, কৃষি অর্থনীতি, কৃষি প্রযুক্তি নিয়ে যত গবেষণা হয়েছে, দরিদ্রতা নিরসনেও অবদান রাখতে হবে। জ্ঞানার্জনের জন্য, গবেষণার জন্য, উন্মুক্ত পরিবেশে তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে কৃষিপণ্যকে কতটা সহজলভ্য করা যায়, তা নিয়ে চিন্তা করতে হবে।’

নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্য প্রদান করেন- ডিন কাউন্সিলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. নুরুল ইসলাম, প্রক্টর অধ্যাপক ড. মো. আজহারুল হক।

বক্তারা বলেন, ‘বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি) চত্বরেই বঙ্গবন্ধু কৃষিবিদদের প্রথম শ্রেণির মর্যাদার কথা ঘোষণা করেন। তিনি বলেছিলেন ‘আমি তোদের সম্মান দিলাম তোরা তার মর্যাদা রাখিস’। সেই মর্যাদাকে সমুন্নত রেখেছে কৃষিবিদ গ্র্যাজুয়েটরা। যেখানে মানুষ আগে তিন বেলা অন্ন জোগাড় করতে পারত না সেই বাংলাদেশ আজকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। দেশের চাহিদা মিটিয়ে বাংলাদেশ বিদেশেও খাদ্য রপ্তানি করছে।’

(Visited 89 times, 1 visits today)