দেশে সীমিত আকারে চলবে ট্রেন

নিউজ ডেস্ক:

করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে আগামী ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত দেশের সরকারি-বেসরকারি সব ধরনের প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। এ সময়ে প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বের হওয়া যাবে না। গতকাল সোমবার সচিবালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

ফলে অন্যান্য ছুটি মিলে টানা ১০ দিনের ছুটি পাওয়ায় রাজধানীবাসীর অনেকেই পরিবার নিয়ে বাড়ি ফেরার জন্য সোমবার (২৩ মার্চ) বিকেল থেকেই কমলাপুর, বিমানবন্দর রেলস্টেশনে ভিড় করতে থাকেন! যে কারণে কমলাপুর রেল স্টেশনে হাজারো মানুষের ভিড়। বিকেলে সে ভিড় রূপ নেয় ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফেরার মতো ভিড়ে! প্রতিটি কাউন্টারে দেখা গেছে হাজার হাজার মানুষ লম্বা লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিটের অপেক্ষায়। এমন বেশ কিছু ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে সমালোচনার ঝড় উঠে।

এ অবস্থায় আজ (মঙ্গলবার) থেকে লোকাল-মেইল ট্রেন বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। করোনার প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় আনুষ্ঠানিক ঘোষণার মাধ্যমে মঙ্গলবার সকাল থেকে লোকাল-মেইল ট্রেন বন্ধ হচ্ছে। এছাড়া আগামী ২৬ মার্চ থেকে সকল ট্রেনের টিকিট বিক্রির বন্ধের ঘোষণা আসতে পারে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রেল মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা শরীফ আলম।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে আগামী ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। এসময় সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও বন্ধ থাকবে। আগামী ২৬ মার্চ সরকারি ছুটি, ২৭ ও ২৮ মার্চ সাপ্তাহিক ছুটির সঙ্গে ২৯ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। এরসঙ্গে ৩ ও ৪ এপ্রিল সাপ্তাহিক ছুটি যুক্ত হবে। করোনাভাইরাসের বিস্তৃতি রোধে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

(Visited 30 times, 1 visits today)