সিরিয়া ইস্যুতে এক রাশিয়া-যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

সিরিয়ার যুদ্ধ থামাতে একসঙ্গে কাজ করতে রাজি হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়া। রোববার ভিয়েনায় জি-২০ সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও রাশিয়ান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এক সংক্ষিপ্ত বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্তে পৌঁছান।

হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্র জানান, ওবামা ও পুতিন একমত হয়েছেন যে, জাতিসংঘ যেন সিরিয়ায় বিদ্রোহীদের সঙ্গে আলোচনা করে যুদ্ধ থামানোর চেষ্টা করবে। রোববার জি-২০ সম্মেলনকে কেন্দ্র করেই মূলত: একত্রিত হন বিশ্ব নেতারা। সন্ত্রাসবাদ ঠেকানোর কৌশলই ছিল এবারের সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য।

এর আগে রোববার সকালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা দেন যে, তারা ইসলামিক স্টেটকে নির্মূল করবে এবং সিরিয়ায় যুদ্ধের অবসান ঘটাবে। অস্ট্রেলিয়ান প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুল এনিয়ে ওবামার সঙ্গে দেখাও করেন।

অন্যদিকে, যুদ্ধ থামাতে যুক্তরাজ্য রাশিয়ার সঙ্গে সমঝোতা করতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান। দেশটির প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন বলেন, তিনি যুদ্ধ থামাতে রাশিয়ার সঙ্গে সমঝোতা করতে প্রস্তুত। তিনি এবং অন্যান্য বিশ্বনেতারা পুতিনের মতো একগুঁয়ে না বলেও জানান তিনি।

প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলার দায়ভার স্বীকার করার পর ওবামা ও ক্যামেরন প্রশ্ন তুলেছেন যে, এর পরেও পুতিন কিভাবে সিরিয়া নিয়ে কোনো শক্ত পদক্ষেপ নিচ্ছেন না।

ক্যামেরন বলেন, ‘আমাদের দ্বিমতের জায়গা মূলত: আসাদকে নিয়ে। আমরা মনে করছি, আসাদকে এখনই সরে যাওয়া উচিত। অন্যদিকে রাশিয়া অন্যভাবে চিন্তা করছে। তাই আমাদের এমন একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে হবে যেখানে আসাদ পদত্যাগ করেন এবং দেশটিতেও শান্তি ফিরে আসে।’

ক্যামেরনের সঙ্গে বৈঠকের আগে পুতিন বলেছিলেন, ফ্রান্সে ঘটে যাওয়া মর্মান্তিক ঘটনায় বোঝা যায় যে, আমাদের সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আরো কঠোর হতে হবে। যদিও আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক ভালো নয়, কিন্তু এই সম্পোর্কন্নয়নের সুযোগ রয়েছে।

ইরান এবং রাশিয়া উভয় দেশই সিরিয়ানদের ভোটের মাধ্যমে নতুন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আহ্বান জানিয়েছেন।

সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

Comments

comments