হিলিতে ৮০ টাকায় বিক্রী হচ্ছে ১ কেজি কাচামরিচ

নিউজ ডেস্কঃ

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের পাইকারি বাজারে বাড়তে শুরু করেছে কাঁচামরিচের দাম। এক সপ্তাহের ব্যবধানে এখানকার বাজারে পণ্যটির দাম কেজিতে ১৫ টাকা বেড়ে সর্বোচ্চ ৮০ টাকায় উঠেছে। ভারত থেকে পণ্যটির আমদানি আগের তুলনায় কমে যাওয়ায় পাইকারি পর্যায়ে কাঁচামরিচের দাম বাড়তির দিকে রয়েছে বলে জানান স্থানীয় ব্যবসায়ী ও আমদানিকারকরা।

হিলির পাইকারি আড়তগুলো ঘুরে গতকাল প্রতি কেজি কাঁচামরিচ মানভেদে ৬৫-৮০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা যায়। এক সপ্তাহ আগেও প্রতি কেজি কাঁচামরিচ ৫৫-৬৫ টাকায় বিক্রি হয়েছিল। সেই হিসাবে এক সপ্তাহের ব্যবধানে হিলির পাইকারি বাজারে প্রতি কেজি কাঁচামরিচের দাম বেড়েছে সর্বোচ্চ ১৫ টাকা।

বাজারে দেশে উৎপাদিত কাঁচামরিচের সরবরাহ নেই বললেই চলে। এর মূল কারণ বৈরী আবহাওয়া। ব্যবসায়ীরা বলছেন, একদিকে টানা বৃষ্টি হচ্ছে, অন্যদিকে কয়েকটি জেলায় এরই মধ্যে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে। এর জের ধরে পাইকারি বাজারে দেশে উৎপাদিত কাঁচামরিচ সরবরাহ কমে এসেছে। অনেক জেলায় বন্যার পানিতে মরিচ ক্ষেত নষ্ট হয়ে গেছে। এর প্রভাব রয়েছে কাঁচামরিচের দাম বেড়ে যাওয়ার পেছনে।

স্থানীয় ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন বলেন, কাঁচামরিচের দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে রাখতে ভারত থেকে পণ্যটি আমদানি শুরু করেন হিলির আমদানিকারকরা। এতে দেশের বাজারে সরবরাহ বাড়ায় দাম খানিকটা কমেও এসেছিল। তবে এ পরিস্থিতি বেশি দিন স্থায়ী হয়নি। বর্তমানে টানা বৃষ্টির কারণে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পণ্যটির আমদানি কমে এসেছে। বৃষ্টির কারণে ট্রাকে করে ত্রিপলে বেঁধে কাঁচামরিচ আমদানি করতে হচ্ছে। পথিমধ্যে নষ্ট হচ্ছে অনেক কাঁচামরিচ। সম্ভাব্য লোকসানের আশঙ্কা থেকে আমদানিকারকরা এখন আর কাঁচামরিচ আমদানি করতে চাইছেন না। এসব কারণে পণ্যটির দাম বাড়তে শুরু করেছে।

স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের তথ্য অনুযায়ী, আমদানি শুরুর পর থেকে হিলি সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে প্রতিদিন ১৫-২০ ট্রাক কাঁচামরিচ দেশে এসেছে। বর্তমানের পণ্যটির আমদানির পরিমাণ দৈনিক পাঁচ-সাত ট্রাকে নেমে এসেছে। এর প্রভাব পড়েছে পাইকারি বাজারে কাঁচামরিচের দামে।

  •  
  •  
  •  
  •