কৃষিক্ষেত্রে সময়োপযোগী কার্যকর সমন্বিত প্রকল্প গ্রহণ করার আহ্বান

নিউজ ডেস্কঃ

কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, কভিড-১৯ মহামারী বিশ্বব্যাপী মানুষের জীবনকে পর্যুদস্ত করেছে, মহাসংকটে ফেলেছে। ইতোমধ্যে পৃথিবীর অনেক দেশেই করোনাভাইরাস মহামারীর কারণে খাদ্যাভাব দেখা দিয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্ব ও বাস্তবমুখী পদক্ষেপের ফলে করোনা, আম্ফান ও দীর্ঘমেয়াদি বন্যা মোকাবেলা করে বাংলাদেশ খাদ্য উৎপাদনের ধারা অব্যাহত রেখেছে। সামনের দিনগুলোয় খাদ্য উৎপাদনের এ ধারা অব্যাহত রাখা এবং তা আরো বেগবান করে খাদ্য ও পুষ্টিনিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হলে কৃষিক্ষেত্রে সময়োপযোগী কার্যকর সমন্বিত প্রকল্প গ্রহণ করতে হবে।

কৃষিমন্ত্রী গতকাল মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষ থেকে অনলাইনে বার্ষিক উন্নয়ন প্রকল্পের (এডিপি) বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনায় সভায় এ কথা বলেন। প্রকল্প পরিচালকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, প্রকল্প বাস্তবায়নই শেষ কথা নয়, বরং যে লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য সামনে রেখে প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছিল তার কতটুকু অর্জন হয়েছে তা মূল্যায়ন করে দেখতে হবে। মাঠ পর্যায়ে বাস্তবায়িত প্রকল্প কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধিতে কতটুকু প্রভাব ফেলেছে এবং এগুলোর অর্জন কতটুকু, তা এখন থেকে তুলে ধরতে হবে। চাষীরা উদ্ভাবিত নতুন জাত ও প্রযুক্তি গ্রহণ করছে কিনা এবং উৎপাদন বাড়ছে কিনা তা জানাতে হবে।

সভায় জানানো হয়, চলমান ২০২০-২১ অর্থবছরের এডিপিতে কৃষি মন্ত্রণালয়ের আওতায় ৬৮টি প্রকল্পের অনুকূলে মোট ২ হাজার ৩৬১ কোটি টাকা বরাদ্দ আছে।

সভাটি সঞ্চালনা করেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নাসিরুজ্জামান। এ সময় মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সংস্থাপ্রধানসহ প্রকল্প পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন। এডিপি সভা শুরুর আগে কৃষিমন্ত্রী অনলাইনে কৃষি তথ্য সার্ভিসের পাবনা আঞ্চলিক অফিসের উদ্বোধন করেন।

  •  
  •  
  •  
  •