গাভীকে যা খাওয়ালে দুধ বৃদ্ধি হবে

নিউজ ডেস্কঃ

গবাদিপশু বিশেষ করে গাভী পালন একটি লাভজনক পেশা। অথচ এই গাভীর দুধ বৃদ্ধিতে দানাদার খাদ্যের ব্যবহার আমরা অনেকেই জানি না। গাভী পালনের ক্ষেত্রে গাভীর দুধ উৎপাদন একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তবে গাভীর দুধ উৎপাদন বৃদ্ধিতে গাভীর খাদ্য সবচেয়ে বেশি ভূমিকা পালন করে। গাভীর খাদ্য প্রক্রিয়াকরণে আধুনিক পদ্ধতি ব্যবহার করলে খাদ্যে পাচ্যতা, পুষ্টিগুণ ও দুধ উৎপাদন বৃদ্ধি করা যায়। গাভী পালন করে অনেকেই বেকারত্ব দূর করে স্বাবলম্বী হচ্ছেন।

গাভীর দুধ বৃদ্ধিতে দানাদার খাবারের ব্যবহারঃ
১. গাভীর দুধ উৎপাদন বৃদ্ধি এবং এই উৎপাদনশীলতাকে ধরে রাখার জন্য গাভীকে সুষম ও সঠিক পরিমাণে খাদ্য দিতে হবে।

২. তবে গাভীর জন্য সুষম খাদ্য তৈরি করতে হলে প্রয়োজনীয় খাদ্য উপাদানগুলো সঠিক পরিমাণ অনুযায়ী ব্যবহার করতে হবে।

গাভীর সুষম খাদ্য তৈরির উপকরণসমূহঃ

খড়ঃ ১০০ কেজি দৈহিক ওজন বিশিষ্ট একটি গাভীর জন্য সাধারণত ১ থেকে ২ কেজি খড়।

সবুজ ঘাসঃ ৫ থেকে ৬ কেজি সবুজ ঘাস খাওয়াতে হবে।

দানাদার খাদ্যঃ গাভীকে ১ থেকে দেড় কেজি দানাদার খাদ্য দিতে হয়।

পানিঃ গাভীর চাহিদা অনুযায়ী পানি দিতে হবে।

দানাদার খাদ্যের মিশ্রণ তৈরিঃ

গাভীর দানাদার খাদ্য মিশ্রনে চাউলের কুঁড়া ২০%, খেসারি ভাঙ্গা ১৮%, গমের ভূষি ৫০%, খৈল ১০% খনিজ মিশ্রণ ১% এবং আয়োডিনযুক্ত লবন ১% রাখতে হবে।

দুগ্ধবতী গাভীর ক্ষেত্রে প্রথম ১ লিটার দুধ উৎপাদনের জন্য ৩ কেজি দানাদার খাদ্য এবং পরবর্তী প্রতি ৩ লিটার দুধ উৎপাদনের জন্য ১ কেজি হারে দানাদার খাদ্য দিতে হবে।

নিচে ২৫০-৩০০ কেজি ওজনের দুগ্ধবতী গাভীর সুষম খাদ্য দৈনিক খাদ্য তালিকা দেয়া হল-

কাঁচা সবুজ ঘাস ৯ থেকে ১২ কেজি, শুকনো খড় ৩ থেকে ৪ কেজি, দানাদার খাদ্য মিশ্রণ ৪ থেকে ৭ কেজি

  •  
  •  
  •  
  •