রাবিতে ‘পলাশী পুরাণ’ যাত্রাপালা আগামী রবিবার

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি:
রাজদরবারে নবারের জন্য অপেক্ষা করছিলেন সভাসদবৃন্দ। নবাব প্রবেশ করলেন। সভাসদ সদস্যরা দাঁড়িয়ে তাকে সম্মান জানালেন। নবাব তার আসন গ্রহণ করলেন। কিছুক্ষণ পর তিনি একটি ঘোষণা পাঠ করতে শুরু করলেন। নবাব তার ঘোষণায় জানালেন, আগামী ২ ও ৩ ফেব্রুয়ারি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শেখ রাসেল চত্বরে একটি অন্তর্বর্তী যাত্রাপালা ‘পলাশী পুরাণ’র মঞ্চায়ন হবে। নাট্যকলা বিভাগের অদম্য-১৮ অপেরার প্রযোজনায় বিভাগের শিক্ষক রহমান রাজুর নির্দেশনায় যাত্রাপালাটি অনুষ্ঠিত হবে।

শুক্রবার বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সিরাজী ভবনে নাট্যকলা বিভাগের থিয়েটার ল্যাবে প্রদর্শীত রাজদরবাটি ছিল একটি অভিনব সংবাদ সম্মেলন। যেখানে নবাব ‘পলাশী পুুরাণ’ যাত্রাপালা সম্পর্কে জানান দেন। লিখিত বক্তব্যে নবাব আরও জানান, যাত্রাপালায় উপস্থিত হওয়ার জন্য সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মুহাম্মদ জাকারিয়া ও অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, জেলা প্রশাসক হামিদুল হক প্রমুখ।

মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত নাট্যকার সিকানদার আবু জাফর অবলম্বনে ‘পলাশী পুরাণ’ যাত্রাপালাটি আগামী ২ ও ৩ ফেব্রুয়ারি যথাক্রমে রবি ও সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় শেখ রাসেল চত্বরে অনুষ্ঠিত হবে। তিনটি ক্যাটাগরিতে দর্শক সারিতে বাংলার মাটি’র জন্য ত্রিশ টাকা, সাধারণ কেদারা’র জন্য একশত টাকা ও আরাম কেদারা’র জন্য পাঁচশত টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বরে যাত্রার টিকেট ক্রয়ের জন্য বুথ বসানো হয়েছে।

জানতে চাইলে নাট্যকলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক রহমান রাজু বলেন, ‘যাত্রাটি মূলত বিভাগের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষার অংশ হিসেবেই মঞ্চায়ন করা হবে। যাত্রা আমাদের ঐতিহ্য। আবহমান গ্রাম বাংলার মানুষ আগে মাটিতে বসেই যাত্রা দেখতেন। সেই ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনতে আমরা এ যাত্রার আয়োজন করেছি।

  •  
  •  
  •  
  •