শিক্ষকদের মোবাইল ব্যাংকিং নম্বর চেয়েছে সরকার

নিউজ ডেস্কঃ

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের আওতাধীন নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের মোবাইল ব্যাংকিং নম্বর চেয়েছে সরকার। রোববার (২৪ মে) শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকা, শিক্ষক-কর্মচারীদের তথ্যাদি ব্যানবেইসের জাতীয় শিক্ষা জরিপ-২০১৯ হালনাগাদ করার জন্য প্রয়োজন। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অধীন নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের (নিম্ন মাধ্যমিক, মাধ্যমিক, স্কুল অ্যান্ড কলেজ, উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ এবং ডিগ্রি কলেজ) তালিকা ও শিক্ষক-কর্মচারীদের নাম এবং একটি নির্ধারিত ছকে চাওয়া হয়েছে। এতে প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষক-কর্মচারীদের নাম স্থানীয় প্রশাসনের তত্ত্বাবধান এবং জেলা শিক্ষা অফিসার/উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার/থানা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসারের মাধ্যমে যাচাই করে সংযুক্ত ছক মোতাবেক তথ্যাদি আগামী ২৮ মে এর মধ্যে পাঠাতে বলা হয়েছে। ছকে শিক্ষক-কর্মচারীদের মোবাইল ব্যাংকিংয়ের নাম্বারও চাওয়া হয়।

মোবাইল ব্যাংকিংয়ের নাম্বার চাওয়ার কারণ জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মোমিনুর রশিদ আমিন বলেন, ‘নন-এমপিও শিক্ষকদের প্রণোদনা দিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমরা প্রস্তাব পাঠিয়েছি। শিক্ষক-কর্মচারীদের তালিকা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘প্রণোদনা দেওয়ার বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে আমরা আশাবাদী, নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের কিছু হলেও প্রণোদনা দেওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পেলে এ বাবদ অর্থ সহায়তা দেওয়া হবে।’

এদিকে, নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীদের জন্য প্রণোদনা চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানিয়েছে বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ও এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ লিয়াজোঁ ফোরামের মুখপাত্র মো. নজরুল ইসলাম রনি এবং এবং বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির মহাসচিব মো. মেজবাহুল ইসলাম প্রিন্স।

  •  
  •  
  •  
  •