মুক্তিযুদ্ধের বই বিক্রির নামে চাঁদাবাজি, বাকৃবি থেকে আটক দুই

cadabazi

রোহান ইসলাম, নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বই বিক্রির নামে চাঁদাবাজির অভিযোগে দুইজনকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়। এ ঘটনায় পলাতক আছেন একজন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বক্তব্য থেকে জানা যায়, আটককৃত ব্যক্তিরা গত কিছুদিন যাবত বিভিন্ন অনুষদের শিক্ষকদের নিকট মুক্তিযুদ্ধের বই বিক্রির নামে চাঁদাবাজি করে আসছিলো। তাদের কথাবার্তা ও আচরণ অসংগত হওয়ায় শিক্ষকবৃন্দ বিশ্ববিদ্যালয়ের নবনিযুক্ত প্রক্টর অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মহির উদ্দীনের নিকট নালিশ করেন।

পরবর্তীতে তাদের ওপর নজরদারি জোরদার করা হয়। বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ, ২০২১) দুপুরে সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের পরিচয় জানতে চাইলে দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তার সাথে তাদের কথা কাটাকাটি শুরু হয়। এসময় ছিনতাইকারী বলে চিৎকার করলে সন্দেহভাজন ব্যক্তিরা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। এসময় দুজনকে আটক করা সম্ভব হলেও একজন পালিয়ে যায়। পরে তাদের আটক করে পুলিশের নিকট সোপর্দ করা হয়।
book

                                         (যে বইটি তারা বিক্রি করত তার ছবি)

এ বিষয়ে এসআই ইব্রাহিম জানান, বর্তমানে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কথা বলে অনেকে নিজেদের স্বার্থ হাসিল করার চেষ্টা করছে। আটককৃত ব্যক্তিরা সে-রকমই। এছাড়া তারা মাদকাসক্ত বলেও স্বীকারোক্তি দিয়েছে। তারা অনুষ্ঠান করবে বলে প্রতিদিন শিক্ষকদের নিকট টাকা আদায় করতো। শিক্ষকবৃন্দ নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা দিলে তারা সেটি গ্রহণ না করে আরও বেশি টাকা দাবি করতো। দুতিনদিন একই ঘটনা ঘটার পরে শিক্ষকদের সন্দেহ হয় এবং তারা বিষয়টি সম্পর্কে আমাদের অবগত করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভুক্তভোগী একজন শিক্ষক বলেন, তারা সেচ্ছাসেবক লীগের পরিচয় দিয়ে এবং অনুষ্ঠান করে গরীবমানুষদের খাওয়ানোর কথা বলে বইয়ের দামের বাহিরেও সাহায্য হিসেবে অতিরিক্ত টাকা আদায় করে।

এদের মধ্যে ২ জনের বাড়ি শহরের নৌমহল ও ১ জনের বাড়ি সেহারা বলে জানা গেছে।

পলাতক আরেকজনকে আটক করা সম্ভব হবে কি না জানতে চাইলে তিনি জানান, দুজনকে যেহেতু আটক করা হয়েছে পলাতক ব্যক্তিকেও আটক করা সম্ভব হবে এবং প্রচলিত আইনে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •