করোনা ভাইরাসে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের মৃত্যুকেও হার মানাল যুক্তরাষ্ট্র

নিউজ ডেস্কঃ

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস মহামারিতে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশ যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। গত চব্বিশ ঘণ্টায় আরো ৭২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে করোনায় মৃত্যু সংখ্যা প্রথম বিশ্বযুদ্ধে দেশটিতে মোট প্রাণহানিকেও ছাড়িয়ে গেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।
জনস হোপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্যানুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় এখন পর্যন্ত মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ১৯ হাজারের বেশি। যা প্রথম বিশ্বযুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের মৃত্যুর চেয়েও বেশি। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের ২২ লাখের বেশি মানুষের দেহে ভাইরাসটি সংক্রমিত হয়েছে।

১৯১৪ থেকে ১৯১৮ সাল পর্যন্ত চলা ‘গ্রেট ওয়ার’ নামে ওই বিশ্বযুদ্ধে মিত্রশক্তির পক্ষ হিসেবে অংশ নেয় যুক্তরাষ্ট্র। বিজয়ী হলেও দেশটির লক্ষাধিক মানুষকে প্রাণ দিতে হয়েছিলওই যুদ্ধে। গত এপ্রিলের শেষদিকে করোনায় মৃত্যু ১৬ বছরের দীর্ঘ ভিয়েতনাম যুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের মোট প্রাণহানির সংখ্যাকেও ছাড়িয়ে যায়।

এর আগে এপ্রিলের শেষ দিকে যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় মৃত্যু সংখ্যা গত শতকে পরাজিত হওয়া ১৬ বছরের দীর্ঘ ভিয়েতনাম যুদ্ধে দেশটির যত মানুষ নিহত হয়েছিল সেই সংখ্যাকেও ছাড়িয়ে যায়।

তবে গত দুদিন মৃত্যু সংখ্যা চারশোর নিচে থাকায় ধারণা করা হচ্ছিল যুক্তরাষ্ট্রের পরিস্থিতি অনেকটা ভালোর দিকে এগুচ্ছে। কিন্তু সবশেষ চব্বিশ ঘণ্টায় দেশটি ফের সাতশো ছাড়ানো মৃত্যু দেখল। এই সময়ে বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যাও। আক্রান্তের তালিকায় নতুন করে যোগ হয়েছে ২৩ হাজার ৩৫১ জনের নাম। তাতে মোট আক্রান্ত দাঁড়িয়েছে ২১ লাখ ৩৫ হাজার ছুঁই ছুঁই।

গত বছরের শেষ দিকে চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস। যুক্তরাষ্ট্রে এই ভাইরাসের সংক্রমিত রোগীর সন্ধান মেলে চলতি বছরের জানুয়ারির শেষ দিকে। দেশটিতে এখনো গড়ে প্রতিদিন ২০ হাজার মানুষ এই ভাইরাসে সংক্রমিত হচ্ছে।

পরিস্থিতির তেমন উন্নতি না হলেও প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসন লকডাউন শিথিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। দেশের অর্থনৈতিক চাকা সচল রাখতে চালু করা হয়েছে ব্যবসা-বাণিজ্য।

  •  
  •  
  •  
  •