ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেইর বোলসোনারো করোনা চিকিৎসায় হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন গ্রহণ করছেন

নিউজ ডেস্কঃ

সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জেইর বোলসোনারো। সামাজিক মাধ্যমের এক পোস্টে ব্রাজিলিয়ান প্রেসিডেন্ট জানিয়েছেন যে, তিনি করোনার চিকিৎসায় হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন গ্রহণ করছেন।

বৃহস্পতিবারের ওই পোস্টে বোলসোনারো আরও জানিয়েছেন যে, তিনি এখন ভালো আছেন। হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন নিয়ে বিতর্ক থাকলেও তিনি এর পক্ষে সাফাই গেয়েছেন।

সম্প্রতি বোলসোনারোর শরীরে করোনার উপসর্গ দেখা দেয় এবং প্রবল জ্বরে ভুগছিলেন ৬৫ বছর বয়সী এই নেতা। পরবর্তীতে তার দেহে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে করোনার উপস্থিতি ধরা পড়ে।

এদিকে, প্রতি সপ্তাহেই নিজের ফেসবুক পেজ থেকে লাইভে আসেন তিনি। করোনায় আক্রান্ত হলেও চলতি সপ্তাহে নিজের কার্যালয় থেকে লাইভ করেছেন বোলসোনারো। সে সময় তিনি জানান যে, তার শারীরিক অবস্থা ভালো আছে।

বোলসোনারো বলেন, গত সপ্তাহের শেষের দিক থেকেই শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন তিনি। এরপর থেকেই প্রতিদিন তিনি হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন গ্রহণ করছেন।

এই ওষুধটি মূলত ম্যালেরিয়ার চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়। তবে অনেক দেশই ইতোমধ্যে করোনার চিকিৎসায়ও এই ওষুধটি ব্যবহার করা শুরু করেছে। তবে বিজ্ঞানীদের মধ্যে এ নিয়ে বিতর্ক রয়েছে এবং এই ওষুধ করোনার চিকিৎসায় কার্যকর কিনা আনুষ্ঠানিকভাবে এমন কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

নিজের ফেসবুক লাইভে বোলসোনারোকে বলতে শোনা গেছে যে, আমি এটা পরিস্কারভাবেই বলছি। আমি হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন গ্রহণ করেছি এবং এটা কাজ করছে। আমি ভালো আছি। ঈশ্বরকে ধন্যবাদ।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই শহরে প্রাদুর্ভাব হওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস এখন বিশ্বের ২১৩টি দেশে বিপর্যয় ঘটাচ্ছে।

এখন পর্যন্ত করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যুর ঘটনা যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটির ৫০টি অঙ্গরাজ্যেই করোনার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে।

এদিকে, করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের পরেই রয়েছে ব্রাজিল। করোনা নিয়ন্ত্রণে বোলসোনারো সরকারের খাম-খেয়ালি এবং কঠোর পদক্ষেপের অভাবে দেশটি যেন এক মৃত্যুপুরীতে পরিণত হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •