আপনাদের পছন্দ হোক বা না হোক, মাস্ক পরতেই হবে: ট্রাম্প

নিউজ ডেস্কঃ

করোনাভাইরাসে সংক্রমণ ঠেকাতে মাস্ক পরা নিয়ে অবস্থান পাল্টেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দীর্ঘ বিরতির হোয়াইট হাউসের মহামারি নিয়ে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে ট্রাম্প আমেরিকানদের মাস্ক পরার জন্য উৎসাহিত করেছেন। তিনি বলেছেন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা সম্ভব না হলে মাস্ক পরা উচিত। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এখবর জানিয়েছে।

হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের ট্রাম্প বলেছেন, মহামারি পরিস্থিতির উন্নতির হওয়ার আগে হয়ত আরও খারাপ হতে পারে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা সবাইকে বলছি যে, আপনারা যখন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে পারবেন না তখন মাস্ক পরুন, মাস্ক কিনুন। আপনাদের পছন্দ হোক বা না হোক, মাস্ক পরার কার্যকারিতা আছে। ফলে সংক্রমণ ঠেকাতে আমাদের সম্ভাব্য সবকিছুই করতে হবে।

ট্রাম্প জানান, তিনি মাস্ক ব্যবহারে অভ্যস্ত হচ্ছেন এবং কয়েকজনের সঙ্গে থাকলে বা লিফটে থাকলে মাস্ক পরবেন। বলেন, আমি গর্বের সঙ্গেই ব্যবহার করব। সম্ভাব্য যা কিছুই সহযোগিতা করবে তা ভালো।

এর আগে ১৭ জুলাই ফক্স নিউজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বলেছিলেন, জাতীয়ভাবে মাস্ক বাধ্যতামূলক করার পক্ষপাতী নন তিনি। জনগণকে জোর করে হলেও মাস্ক পরানোর পদক্ষেপ নিতে মার্কিন সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউচির আহ্বানের পর এমন মন্তব্য করেন তিনি।

করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে একাধিক বার ট্রাম্প বলেছিলেন, তিনি মাস্ক পরবেন না। এমনকি মাস্ক পরার জন্য ডেমোক্র্যাট প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনকে নিয়েও ব্যাঙ্গ করেছেন তিনি। তবে সম্প্রতি আগের অবস্থান থেকে কিছুটা সরে আসেন ট্রাম্প। ওয়াশিংটনের বাইরে ওয়াল্টার রিড সামরিক হাসপাতাল পরিদর্শনে প্রথমবারের মতো মাস্ক পরতে দেখা যায় তাকে।

  •  
  •  
  •  
  •