ভারতের ১০ রাজ্যে বার্ড ফ্লু

নিউজ ডেস্কঃ

দিল্লি, মহারাষ্ট্র ও উত্তরাখণ্ড, এই তিন রাজ্যেও বার্ড ফ্লু দেখা দিয়েছে বলে ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় সরকার। গত কাল পর্যন্ত সাত রাজ্যে ((উত্তরপ্রদেশ, কেরল, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, হরিয়ানা, হিমাচল প্রদেশ, গুজরাত) এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জার দাপট দেখা গিয়েছিল। আজ তা বেড়ে দাঁড়াল দশে। গোটা পরিস্থিতিতে উদ্বিগ্ন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আজ তিনি জানিয়েছেন, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে মৎস্য, পশুপালন এবং দুগ্ধজাত পণ্য মন্ত্রকের তরফে নির্দিষ্ট পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এই পরিকল্পনায় জেলাশাসকদের ভূমিকা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। তাই আক্রান্ত রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রীদের প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, জেলাশাসকদের যেন উপযুক্ত সহযোগিতা করে রাজ্যগুলি। সতর্কতা জারি করা হয়েছে অন্য রাজ্যগুলিকেও। প্রধানমন্ত্রীর আশা, বনবিভাগ, স্বাস্থ্য ও পশুপালন দফতরের সমন্বয়ে সমস্ত সমস্যা কাটিয়ে ওঠা যাবে।

আজ পার্লামেন্টের কৃষি সংক্রান্ত সংসদীয় কমিটির তরফে পশুপালন মন্ত্রকের পদস্থ আধিকারিকদের ডেকে জানতে চাওয়া হয়, দেশে কত পরিমাণ পশুপাখিদের প্রতিষেধক রয়েছে। পশুপালন মন্ত্রকের তরফে সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে সচেতনতা প্রচারে জোর দিতে বলা হয়েছে। জলাশয়, পাখি বাজার, চিড়িয়াখানা, পোলট্রি ফার্মে রাজ্যগুলিকে নজরদারির অনুরোধ জানানো হয়েছে। পাশাপাশি সংক্রমিত পাখি মেরে ফেলার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণে পিপিই কিট ও অন্য সামগ্রীর জোগান বজায় রাখার অনুরোধও জানানো হয়েছে। বার্ড ফ্লু নিয়ে যাতে গুজব ছড়ায়, সেই দিকেও রাজ্যগুলিকে নজর রাখতে অনুরোধ জানিয়েছে কেন্দ্র।

এখনও পর্যন্ত হরিয়ানায় চার লক্ষাধিক পাখির মৃত্যু হয়েছে। সতর্কবার্তা পাঠানো হয়েছে জম্মু ও কাশ্মীর এবং ছত্তীসগঢ়েও। তবে এভিয়ান ফ্লুয়ের জেরে এখনও কোনও মানুষের সংক্রমণ হওয়ার খবর মেলেনি বলে জানিয়েছেন পশুপালনমন্ত্রী গিরিরাজ সিংহ।

  •  
  •  
  •  
  •